তিতাসে আন্তঃস্কুল ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে শিক্ষার্থীদের তাণ্ডব

নাজমুল করিম ফারুক :–
কুমিল্লার তিতাসে আন্তঃস্কুল ফুটবল টুনার্মেন্টের ফাইনাল খেলাকে কেন্দ্র করে বিরোধের জের ধরে গাজীপুর খান হাইস্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীরা গৌরীপুর-হোমনা সড়ক অবরোধ করে গাড়ী ভাংচুর ও যাত্রীদের উপর হামলা চালায়। আজ বুধবার গৌরীপুর-হোমনা সড়কের গাজীপুর বাস স্টেশন থেকে কড়িকান্দি বাস স্টেশন পর্যন্ত রাস্তায় এ ঘটনা ঘটে। শিক্ষার্থীদের তাণ্ডব প্রায় আড়াই ঘন্টা স্থায়ী হওয়ায় উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্টেট আরিফুল ইসলাম সরদার ও থানা পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, আন্তঃস্কুল ফুটবল টুনার্মেন্টের ফাইনাল খেলা গত মঙ্গলবার বিকালে বাতাকান্দি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রতিদ্বন্ধিতা করে গাজীপুর খান হাইস্কুল এন্ড কলেজ এবং মৌটুপী ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা। খেলার প্রধমার্ধে গাজীপুর ১-০ গোলে এগিয়ে যায়। দ্বিতীয়ার্থে খেলা শুরু হওয়ার পর পর মৌটুপী খেলোয়াররা গাজীপুরে টিমে বহিরাগত আছে বলে অভিযোগ তুলেন এবং অভিযোগ সত্য প্রমাণিত হলে অভিযুক্ত খেলোয়ারকে মাঠ থেকে তুলে নেয়া হয়। উক্ত ক্ষোভে খেলা চলাকালিন সময়ে গাজীপুর স্কুলের খেলোয়ার, শিক্ষার্থী ও দর্শক মৌটুপী খেলোয়ারদের উপর হামলা করে এবং এলোপাতারী পেটাতে থাকে। এসময় মৌটুপীর খেলোয়ার ও শিক্ষার্থীরা ভয়ে বাতাকান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের বিভিন্ন শ্রেণী কক্ষে আশ্রয় নিলে সেখানেও হামলা চালিয়ে বাতাকান্দি স্কুলের বিভিন্ন শ্রেণীকক্ষের দরজা ও জানালা ভাংচুর করে। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্টেট আরিফুল ইসলাম সরদার অতিরিক্ত পুলিশ নিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। সন্ধ্যা ৭টায় মৌটুপী মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা বাতাকান্দি থেকে মৌটুপী আসার পথে গাজীপুরের শিক্ষার্থীরা রাস্তা অবরোধ করে মৌটুপী মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ও দর্শকদের উপর হামলা চালায় এবং একাধিক গাড়ী ও সিএনজি ভাংচুর করে। এতে প্রায় ৫ জন আহত হলে ৩ জনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।
উক্ত ঘটনার জের ধরে গাজীপুর স্কুলের দপ্তরী বিল্লাল হোসেনকে মৌটুপীর শিক্ষার্থীরা আটক করে মারধর করেছে এমন অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার ১১টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত গাজীপুর স্কুল ও কলেজ শাখার শিক্ষার্থীরা গৌরীপুর হোমনা সড়ক অবরোধ করে প্রায় ১৫টি সিএনজি, ১টি ট্র্যাক ভাংচুর করে এবং রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে উল্লাস করে। এক পর্যায়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌছলে শিক্ষার্থীরা পুলিশের উপর চওড়া হয় এবং তাদের বিরুদ্ধে কটুউক্তি করে স্লোগান দিতে থাকে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে পিছু হটলে শিক্ষার্থীরা মারমুখী ভুমিকা নিয়ে গাজীপুর বাস ষ্টেশন থেকে কড়িকান্দি বাস স্টেশন পর্যন্ত তাণ্ডব চালায়। এসময় অনেক যাত্রী আকুতি মিনতি করলেও শিক্ষার্থীরা তাদের উপর হামলা চালায়। উক্ত ঘটনার ইন্ধনদাতা হিসেবে গাজীপুর খান হাইস্কুল এন্ড কলেজের স্কুল শাখার খন্দকালীন শিক্ষক সাদ্দাম হোসেনকে সকল শিক্ষকদের সম্মুখে উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্টেট সর্তক করে দেন। এদিকে যখন শিক্ষার্থীরা রাস্তা অবরোধ করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিতে ব্যস্ত তখন গাজীপুর স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষকগণ শিক্ষকমন্ডলীর কক্ষে বসে কালক্ষেপন করে। এসময় রাস্তা অবরোধের বিষয়টি অধ্যক্ষ আঃ বাতেনকে অবহিত করলে তিনি জানান, শিক্ষার্থীরা তাদের কথা শোনে না, কন্টলের বাহিরে।
উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্টেট আরিফুল ইসলাম সরদার জানান, খেলাকে কেন্দ্র করে যে ঘটনার সৃষ্টি হয়েছে তা অত্যান্ত দুঃখজনক। বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় উভয় স্কুলের শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের নিয়ে বিষয়টি মিমাংসা করা হবে বলে প্রাথমিক ভাবে সিদ্ধান্ত হয়েছে। মৌটুপী ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মোঃ জাকারিয়া জানান, আমাদের মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা মাদ্রাসা থেকে বাহির হয়নি। সে অভিযোগ আনা হয়েছে তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...