সিএনজি চালকদের ধর্মঘটে অচল চৌদ্দগ্রামের গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি সড়ক হামলার শিকার ধর্মঘট বিরোধীরা

মোঃ বেলাল হোসাইন, চৌদ্দগ্রাম :–
ফেণী জেলা সিএনজি চালক সমিতি কর্তৃক হঠ্যাৎ ঘোষিত ধর্মঘটে ফেণী সংলগ্ন চৌদ্দগ্রাম উপজেলার দক্ষিন অংশের বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সড়কে বন্ধ রয়েছে সিএনজি চলাচল। ধফেণী জেলা সংলগ্ন চৌদ্দগ্রাম উপজেলার দক্ষিন অংশের ধর্মঘট চলমান সড়কগুলো হলো: চিওড়া-ঢালুয়া সড়ক, পদুয়া- গুনবতী সড়ক, ফকির বাজার-চৌধুরী বাজার সড়ক, গাংরা সড়ক। এতে করে সড়কগুলোকে চলাচলকারী হাজার হাজার লোক পড়েছে ব্যাপক দুর্ভোগে। প্রতিদিন দক্ষিন অংশের এসব সড়ক দিয়ে চলমান বিভিন্ন অফিস, স্কুল, মাদ্রাসা, কলেজগামী ছাত্র-ছাত্রীসহ সাধারন মানুষকে অনেক বেশি ভাড়া দিয়ে রিক্সায় চলাচল করতে হচ্ছে। অনেক সময় রিক্সা না পেয়ে অনেক দুর থেকে পায়ে হেঁটে আসছে মানুষ।
ভুক্তভোগী উপজেলার দক্ষিন অংশের সবচেয়ে ব্যস্থ সড়ক চিওড়া-ঢালুয়া সড়কের এক যাত্রী জানান, সিএনজি না যেখানে ২০ টাকার সিএনজি ভাড়া সেখানে আজকে ১০০-১৫০ টাকা দিয়ে ধোড়করা বাজার থেকে চিওড়া রাস্তার মাথায় আসতে হয়। অনেক সময় সিএনজি না পেয়ে ভাঙ্গা এই সড়ক দিয়ে হেটেই আসছে অসংখ যাত্রী। এছাড়া কোন সিএনজি চলতে চাইলে ঐ সিএনজি এবং তার চালককে হেনস্থা এমনকি মারধর পর্যন্ত করা হচ্ছে।
এদিকে ধর্মঘটের শুরুতেই বুধবার সকালে চিওড়া-ঢালুয়া সড়কের ধোড়করা বাজারে ধর্মঘটের পক্ষের অংশের হামলায় আহত হয়েছে ধর্মঘটবিরোধী বেশ কয়েকজন সিএনজি চালক। আহতরা হলো: চিওড়া ইউনিয়নের ঘোষতল গ্রামের সিএনজি চালক মোঃ শিপন, একই ইউনিয়নের নেতড়া গ্রামের মোঃ মফিজ। চিওড়া-ঢালুয়া সড়ক সিএনজি মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম জানান, ফেণী থেকে ঘোষিত এই ধর্মঘটের প্রতি আমাদের কোন সমর্থন নেই। এই সড়কের ৮০% চালক চলমান এই ধর্মঘটের বিরোধী কিন্তু চিওড়া বাজার এবং ধোড়করা বাজারের পাশের গুটিকয়েক চালক এই ধর্মঘটের সমর্থনে গাড়ি চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে এবং এই সড়কের বেশ কয়েকজন চালককে মারধর পর্যন্ত করছে। যা আমি ইতিমধ্যেই চৌদ্দগ্রাম থানাকে অবহিত করেছি।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...