মনোহরগঞ্জের মানরা গ্রামের পেয়ারা চাষি আবদুল মন্নান বন্যার পানিতে সর্বস্ব হারিয়েছে

আকবর হোসেন, মনোহরগঞ্জ প্রতিনিধি:–
কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার হাসনাবাদ ইউনিয়নের মানরা গ্রামের পেয়ারা চাষি মোঃ আবদুল মন্নানের পেয়ারা বাগান সাম্প্রতিককালের বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়েছে। পেয়ারা চাষি মোঃ আবদুল মান্নান জানান, আমি হাসনাবাদ বাজার সংলগ্ন আমার গ্রামের পাশে ৬০ শতক জমির উপরে পেয়ারা বাগান করেছি। আমার পেয়ারা বাগানে প্রায় ৮ শত পেয়ারা গাছ আছে। কাজী পেয়ারা সহ দেশী ও বিদেশী প্রজাতির বিভিন্ন পেয়ারা গাছ রয়েছে আমার বাগানে। আমার বাগানে থাকা পেয়ারা গাছগুলোতে বিপুল পরিমাণ পেয়ারা ধরেছিল। কিন্তু সাম্প্রতিক কালের বন্যার পানিতে আমার বাগানে থাকা পেয়ারা গাছগুলো মরতে বসেছে। বেশিরভাগ পেয়ারা গাছ মরেও গেছে। এতে আমার প্রায় ৩ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় আবদুল মন্নানের পেয়ারা বাগানের বেশিরভাগ পেয়ারা গাছ মরে গেছে। বেছে থাকা গাছগুলোর সকল পেয়ারা ঝরে পড়ে গেছে। গাছের গোড়া পর্যন্ত বর্তমানে পানি রয়েছে। ঋণ করে আবদুল মন্নান পেয়ারা বাগান করেছিল। কিন্তু বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়ে গেছে তার সকল আশার আলো। বর্তমানে তিনি পেয়ারা বিক্রি করতে না পেরে পরিবার পরিজন নিয়ে এক প্রকার মানবেতর জীবনযাপন করছেন। কারণ এই পেয়ারা বাগানের পেয়ারা বিক্রি করে তিনি সংসার চালাতেন। বর্তমানে ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে পেয়ারা চাষি আবদুল মান্নান- সরকারী সহযোগিতা, কৃষি অধিদপ্তর ও কৃষি ব্যাংকের সহযোগিতা কামনা করছেন। আবদুল মান্নান আরো জানান, আমার যে ক্ষতি হয়েছে এ ব্যাপারে সরকারি কোন সহয়তা পেলে হয়ত কোন রকম রক্ষা পেতাম।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...