সরকারী নির্দেশ অমান্য করে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের পাশে গরুর বাজার

মো: জাকির হোসেন :–
জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়কের পার্শ্বে গরুর হাট না বসানো সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সির্দ্ধান্ত ও অবৈধ ভাবে স্থাপিত হাট বন্ধে কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের নির্দেশ অমান্য করে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পার্শ্বে চান্দিনা বাসষ্ট্যান্ড সংলগ্ন দেবিদ্বার উপজেলার বাগুর নামক স্থানে গরুর হাট চালিয়ে যাচ্ছে স্থানীয় প্রভাবশালী একটি মহল। স্থানীয় প্রশাসন অবৈধ ভাবে স্থাপিত গরুর বাজারকে উচ্ছেদ অভিযান করলেও বহাল তবিয়তে রয়ে গেছে গরুর হাটটি।
সূত্র মতে, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পার্শ্বে চান্দিনা বাসষ্ট্যান্ড সংলগ্ন কুমিল্লা জেলার দেবিদ্বার উপজেলার বাগুর মৌজার আর.এস ১০৬ ও ১০৮ নং খতিয়ান ভুক্ত ৪৪৭ দাগে হালে এবং বি.এস ৪৩২, ৪৩৩, ৪৩৪ ও ৪৪৬ দাগে সর্বমোট ৭৭ শতক ভূমির ওয়ারিশ সূত্রে মালিক বাগুর গ্রামের মোঃ নুর উদ্দিন, গিয়াসউদ্দিন, লিয়াকত আলী, জাহাঙ্গীর আলম, জাকির হোসেন, মালেক। তবে ওয়াশিদের মধ্যে জমিটির মালিকানা নিয়ে কুমিল্লা এডিশনাল-১ এর আদালতে ৮৩/১৩ নং মামলা বর্তমানেও চলমান রয়েছে। আদালতের নির্দেশে ওয়ারিশরা জমিটির ভোগ দখলের চেষ্টা না করলেও উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের কুরুইন গ্রামের মৃত ছলিম উদ্দিনের ছেলে মোঃ ময়নাল হোসেন ও চান্দিনা উপজেলার রূপনগর এলাকার মৃত কালা মিয়ার ছেলে জাহাঙ্গীর আলম সরকার নেতৃত্বে সুলতানপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ শাহজাহান সহ স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল রাজনৈতিক নেতৃত্বে আড়ালে প্রায় ১ বছর পূর্বে উল্লেখিত ভূমি অবৈধভাবে দখল করে প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া অবৈধভাবে গরুর হাট বসায়। এরপর মোহনপুর মোঃ ময়নাল হোসেন উপজেলার বাগুর মৌজায় নতুন হাট বসানোর অনুমতির জন্য কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে কুমিল্লা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(রাজস্ব) মোঃ আবদুল মতিন স্বাক্ষরিত ১৭/০৯/১৪ইং তারিখে ০০.১৬.২০১৯.২২২.৪৭.০১৩.১৪-৩২৭৩ নং স্মারকে প্রাপ্ত আবেদনটি বিবেচনা করার সুযোগ নেই ও বাজার স্থাপনে ভূমি মালিকদের অভিযোগ এবং মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেওয়া। গত ০৪/০৯/২০১৪ইং তারিখে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগে অনুষ্ঠিত আন্তঃমন্ত্রণালয় বিশেষ সভায় এবং স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় এর ০৮/০৯/২০১৪ইং তারিখের ১০১৫ নং স্মারকে প্রেরিত পত্রে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়কের উপরে ও পার্শ্বে গরুর হাট না বসানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে বলে আবেদনকারীকে জানিয়ে দেওয়া হয় যার অনুলিপি স্থানীয় প্রশাসন, পুলিশ সুপার ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করে জেলা প্রশাসক।
বাজারের অনুমতি না পেয়েও মাইকিং করে উক্ত জমিতে গরুর বাজার স্থাপন করলে জমির মালিকরা জেলা প্রশাসক বরাবরে উচ্ছেদের আবেদন করেন। অনুমতি না থাকা সত্ত্বেও গরুর বাজার স্থাপনে জরুরী ভিত্তিতে
উচ্ছেদের জন্য দেবিদ্বার উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে নির্দেশ দেন কুমিল্লা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(রাজস্ব), যার স্মারক নং- ৩৩৮৩/১(২) তারিখ-২৯/০৯/১৪ইং। দেবিদ্বার উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) দাউদ হোসেন চৌধুরীর নেতৃত্বে থানার এস.আই মোঃ নুরুল ইসলাম, জাকির হোসেন ও জাকির শিকদার সহ একদল পুলিশ নিয়ে গত ১১/১০/১৪ইং রোজ শনিবার অবৈধ গরুর বাজারটি ভেঙ্গে দেন। গত ১৬/১০/১৫ইং তারিখ যৌথভাবে ৯৬৩ নং স্মারকে সহকারী কমিশনার(ভূমি) ও ০৫.০০.১৯৪০.০০০.৩৮.০০২.১৪-৯১৫ নং স্মারকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উচ্ছেদের প্রতিবেদন জমা দেন জেলা প্রশাসক বরাবরে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, অবৈধ গরু বাজারটির দক্ষিণে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের তীব্র যানজট সৃষ্টি ও উত্তরে একটি কিন্ডার গার্টেনে শতাধিক শিক্ষার্থী ভয়ভীতি নিয়ে ক্লাস করছে। অবৈধ গরু বাজারটি বসানোর পর বাজারের লোকজন নতুন ব্রীজ দিয়ে সিএনজি চলাচল করতে না দিয়ে পুরাতন ব্রীজ দিয়ে চলাচল করতে দেওয়া হয়। ভাঙ্গা ব্রীজ দিয়ে চলাচল করতে যাত্রী সহ চালকরা ভয়ে থাকেন। বাজারের লোকজন স্থানীয় সাংসদের বাবা ও স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে অবৈধভাবে বাজারটি এখনো চালিয়ে যাচ্ছে। বিষয়টি জানতে দেবিদ্বার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,দেবিদ্বার ও চান্দিনায় মহাসড়কের পাশে দুটি গরুর বাজার রয়েছে যেগুলোর কোন অনুমতি নেই। জেলা প্রশাসকের অনুমতি পেলে সেগুলো বন্ধ করে দেওয়া হবে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...