লাকসামে সম্পত্তির বিরোধ নিয়ে সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ২জন নিহত, আহত-২৫

শাহ মো. নুরুল আলম :–
সম্পত্তির বিরোধ নিয়ে কুমিল্লার লাকসামে পাল্টাপাল্টি হামলায় উভয় পক্ষের দুই জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে কমপক্ষে ২৫ জন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার মুদাফরগঞ্জ ইউপির শ্রীয়াং গ্রামে। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।
প্রতক্ষ্যদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মুদাফরগঞ্জ ইউপির শ্রীয়াং দক্ষিণপাড়ায় সফিকুর রহমান ও আব্দুল মান্নানের সাথে দীর্ঘদিন ধরে সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। ওই বিরোধের জের ধরে শনিবার বিকেলে সফিকুর রহমানের ছেলে আব্দুর রহিম (৩২) বাড়ীর পাশে মসজিদের সামনে এলে প্রতিপক্ষ আব্দুল মান্নানের ছেলে সুলতান আহমেদের (৩০) সঙ্গে বাগ বিতন্ডা সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে উভয়পক্ষের লোকজন জড়ো হলে ঘটনা সংঘর্ষে রূপ নেয়। ওইসময় সুলতান আহমেদের হাতে থাকা পাঁচ কাটা বল্লমের আঘাতে আব্দুর রহিম গুরুতর আহত হলে অপরপক্ষ তীর চালিয়ে সুলতানের উপর হামলা চালায়। এতে সুলতান আহমেদ, নজির হোসেন, আনোয়ার হোসেন, কামাল হোসেন, জামাল হোসেন, মহরম আলী, মিজি মিয়া, কুট্টুমনু, সখিনা আক্তার, আইরিন আক্তারসহ উভয়পক্ষের কমপক্ষে ২৫জন মহিলা-পুরুষ আহত হয়। আহতদের মধ্যে আব্দুর রহিম ও সুলতান আহমেদকে ওইদিন রাতে আশংকাজনক অবস্থায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দু’জনকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। দু’জনের মৃত্যুর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে উভয়পক্ষের লোকজনের মধ্যে আবারও চরম উত্তেজনা দেখা দিলে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

Laksam Mudar
নিহত আব্দুর রহিমের বাবা সফিকুর রহমান জানান পাশ্ববর্তী বাড়ীর আব্দুল মান্নান ও বাড়ীর লোকজনের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে ৪ একর ২০ শতক সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল এবং বছর খানেক আগে আব্দুল মান্নান তাদেরকে জোরপূর্বক নিজ বাড়ী থেকে উচ্ছেদ করে। শনিবার বিকেলে তার ছেলে আব্দুর রহিম মসজিদের সামনে গেলে আব্দুল মান্নানের লোকজন অতর্কিত হামলা চালিয়ে আব্দুর রহিমকে হত্যা করে।
অপরদিকে নিহত সুলতানের বাবা আব্দুল মান্নান জানান বিরোধীয় সম্পত্তি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে মামলা মোকদ্দমা চলে আসছে। ঘটনার দিন তার ছেলে সুলতান আহমেদের সাথে আব্দুর রহিমের বাগবিতন্ডা হলে উভয়পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। ওইসময় প্রতিপক্ষের হামলায় তার ছেলে নিহত হয়। এ দিকে পুলিশ লাশ দু’টি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরন করে। ময়না তদন্ত শেষে গতকাল রোববার বিকেলে নিহত দু’জনের লাশ পাশাপাশি করে দাফন করা হয়। উত্তেজনা এড়াতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন রয়েছে।
এ বিষয়ে লাকসাম থানা পুলিশের ওসি মো. মনোয়ার হোসেন চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন হত্যাকান্ডে উভয়পক্ষের মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...