তিতাসবাসীর নিত্যসঙ্গী যানজট আর লোডশেডিং

নাজমুল করিম ফারুক :–
কুমিল্লার তিতাস উপজেলাবাসীর নিত্যসঙ্গী হয়ে দেখা দিয়েছে যানজট আর লোডশেডিং। গৌরীপুর-হোমনা সড়কের গৌরীপুর বাজার ও জিয়ারকান্দি ব্রীজে দিনভর যানজট আর রাতদিন ঘন্টায় ঘন্টায় লোডশেডিং যেন তিতাসবাসীর পিছু ছাড়ছে না। দাউদকান্দির গৌরীপুর বাজার থেকে সরু রাস্তার দীর্ঘ যানজট পেরিয়ে এ জনপদে ঢোকার পর চোখে পড়ে ভাঙাচোরা রাস্তাঘাট। ৫০ মেগাওয়াটের একটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র থাকলেও ওই বিদ্যুতের সুবিধা পাচ্ছে না তিতাস উপজেলার মানুষ।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ২০০৪ সালের প্রথম দিকে দাউদকান্দি উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন নিয়ে তিতাস নামে নতুন একটি উপজেলা যাত্রা শুরু করে। ১০৭ বর্গকিলোমিটার আয়তনের এ উপজেলার দক্ষিণে দাউদকান্দি, উত্তরে হোমনা, পূর্বে মুরাদনগর এবং পশ্চিমে মেঘনা উপজেলা। রাজধানী ঢাকা থেকে দূরত্ব মাত্র ৫৫ কিলোমিটার হলেও কুমিল্লা থেকে এর দূরত্ব ৫৮ কিলোমিটার। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে হোমনা সড়ক দিয়ে এ উপজেলায় ঢুকতে শুরুতেই জিয়ারকান্দি সেতু। সরু সেতু দিয়ে শুধু একমুখী যান চলাচলের কারণে সেতুর দুপাশে প্রতিদিনই ভয়াবহ যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। সত্যিই ওই যানজট পেরিয়ে তিতাসে ঢোকার চিত্রটি একটু অন্যরকম। ১ কিলোমিটার রাস্তা পার হতে আপনাকে দেড় থেকে দু’ঘন্টা সময়ের অভিজ্ঞতার সম্মুখিন হতে হবে। যে রাস্তা তিতাসের ওপর দিয়ে চলে গেছে হোমনা উপজেলা দিকে সে রাস্তাও বিভিন্ন স্থানে জীর্ণদশা। ভাঙাচোরার ওই রাস্তার বিকল্প নেই যাত্রী ও গাড়ি চালকদের কাছে। এ জনপদের মানুষের আরেকটি সমস্যা বিদ্যুৎ। তিতাস ৫০ মেগাওয়াট পাওয়ার পিকিং নামে একটি বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র থাকলেও নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সুবিধা পাচ্ছে না এখানকার মানুষ। উপজেলা প্রশাসনের কর্তাব্যক্তি থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষের একটাই দাবি গৌরীপুর বাজার ও জিয়ারকান্দি ব্রীজের যানজট নিরসন এবং বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধান। তবেই তিতাস সত্যিকার অর্থে আলোকিত হবে এবং স্বনির্ভর উপজেলা হিসেবে প্রতিষ্ঠা পাবে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...