বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিঃ অবৈধ গ্যাস সংযোগে অবৈধ বিদ্যূৎ ব্যবহারের সময় মালামাল জব্দ

মো.জাকির হোসেন :–
কুমিল্লার প্রায় সর্বত্রজুড়ে চলছে বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেড’র অবৈধ সংযোগ বানিজ্য। প্রতিদিনই চলছে কোথাও না কোথাও এই অবৈধ সংযোগ দেওয়ার কাজ। আর এই অবৈধ সংযোগের কাজ চলাকালে সংশ্লিস্ট ঠিকাদার বিভিন্নস্থানে অবৈধভাবে বিদ্যূৎ ব্যবহার করে সংযোগ লাইনের কাজ করে যাচ্ছে। গতকাল এমনিভাবে অবৈধ সংযোগ দেওয়া কালে অবৈধভাবে বিদ্যূৎ ব্যবহারের খবর পেয়ে জেলার বুড়িচং উপজেলার ময়নামতি ইউনিয়নের শাহদৌলতপুর গ্রামে পল্লীবিদ্যূতের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অভিযান চালিয়ে অবৈধ বিদ্যূৎ সংযোগ জব্দ করে।
একাধিক দায়িত্বশীল সুত্র জানায়,সরকার সারা দেশে আবাসিকখাতে গ্যাস সংযোগ বন্ধ করলেও কুমিল্লার সর্বত্রজুড়ে বাখরাবাদের একশ্রেনীর দূর্নীতিপরায়ন কর্মকর্তা-কর্মচারী,সিবিএ নেতা সহ ঠিকাদাররা অবাধে চালিয়ে যাচ্ছেন গ্যাস সংযোগ বানিজ্য। প্রতিদিনই জেলার কোথাও না কোথাও চলছে এই অবৈধ সঙযোগ বানিজ্য। অপরাধী এই সিন্ডিকেট সদস্যরা শত শত মিটার দীর্ঘ অবৈধ লাইন টেনে আবাসিকখাকে গ্রাহকদের অবৈধ সংযোগ দিচ্ছে বিরামহীনভাবে। এসময় কখনো কখনো তারা নিরবিচ্ছন্নভাবে তাদের সংযোগ লাইন অব্যাহত রাখতে বিদ্যূৎ বিভাগের লোকজনদের আর্থিক সুবিধা দিয়েও তারা এই অবৈধ সংযোগে কাজ করছে।পল্লী বিদ্রূৎ সমিতি থেকে পাওয়া তথ্যে জানা যায়,গতকাল বুধবার ১৭ জুন জেলার বুড়িচং উপজেলার ময়নামতি ইউনিয়নের শাহদৌলতপুর গ্রামের খান মার্কেট সংলগ্ন এলাকায় পল্লীবিদ্যূতের সংযোগ থেকে বাখরাবাদের ঠিকাদার মুছা ও জহিরের লোকজন অবৈধ গ্যাস সংযোগ দেওয়ার সময় অনুমতিবিহীন বিদ্যূৎ ব্যবহার করে ওয়েল্ডিং মেশিন ব্যবহার করে গ্যাস পাইপ ঝালাইয়ের সময় পল্লীবিদ্যুৎ ময়নামতির দেবপুর শাখা অফিস থেকে লাইনম্যান নুরুল ইসলাম, কিউর ও বিশ্বজিৎ ঘটনাস্থলে পৌছে অবৈধ সংযোগে ব্যবহৃত বৈদ্যূতিক তার জব্দ করে। বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে কুমিল্লা পল্লীবিদ্যূৎ সমিতি-২’র এজিএম গিয়াস উদ্দিন সাংবাদিকদের জানান, বিষয়টি আমরা অবহিত হয়েছি। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। স্থানীয় শাহদৌলতপুর এলাকার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক সুত্র জানায়, বাখরাবাদের অবৈধ সংযোগ বানিজ্যে নিয়োজিত ঠিকাদাররা এই শাহদৌলতপুর এলাকায় অবস্থিত খান মার্কেট ও পাশ্ববর্তী প্রাইমারী স্কুলের আশপাশ এলাকায় শত শত মিটার অবৈধ সংযোগ টেনে অনেক গ্রাহককে অবেধ সংযোগ প্রদান করে কমপক্ষে কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এছাড়াও ময়নামতি ইউনিয়নের নাজিরাবাজার, ফরিজপুর, ঝুমুর, শমেষপুর, হরিণধরা, দেবপুর, চানসার, জিয়াপুর, আকাবপুর, বাদুয়াপাড়া, কালাকচুয়া, বুদুইর, নারায়নসার, চানগাছা, নামতলা, শিবপুর, শরিফপুর, রামপুর স্পিনিং মিলস্রে সামনে প্রায় ১ কিলোমিটার দীর্ঘ বৈধ লাইন টেনে কমপক্ষে ১ হাজারেরও বেশী অবৈধ সংযোগ টেনে অসাদূ চক্রটি বিপুল অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। পাশাপাশি এই অবৈধ সংযোগকারীরা রান্নার কাজে গ্যাস ব্যবহার করে চললেও অধিকাংশ গ্রাহক দীর্ঘ দিন ধরে কোন বিল পরিশোধ করছে না। অবৈধ সংযোগের বিষয়টি নিয়ে এলাকায় তোলপাড় চললেও অজ্ঞাত কারনে বাখরাবাদ সংশ্লিস্ট কর্মকর্তারা রয়েছে নিরব। আর এতে সরকারের বিপুল অংকের রাজস্ব ক্ষতি হচ্ছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...