কুমিল্লায় মায়ের হাতে ছেলে খুন!

কুমিল্লা প্রতিনিধি :–

কুমি­ল্লায় এক পাষণ্ড মা ছেলে জসিম উদ্দিন (৩৫) কে দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে। জেলার বারুড়া উপজেলার ঝানোরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। রোববার ভোরে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জসিম উদ্দিনের মৃত্যু হয়।

নিহত জসিম উদ্দিন ঝানোরা গ্রামের মৃত আবদুল মালেকের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, জসিম উদ্দিন পেশায় কাঠ মিস্ত্রি ছিলেন। মাঝে মধ্যে তার মানসিক সমস্যা দেখা দিলে সে পরিবারের লোকজনকে মারপিট করতো। শনিবার রাতে তার মানসিক সমস্যা দেখা দিলে তাকে বেঁধে রাখা হয়। মধ্য রাতে জসিম উদ্দিনের চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা গিয়ে দেখেন রক্তাক্ত দা হাতে নিয়ে তার মা জাহানারা বেগম (৫৫) দাঁড়িয়ে রয়েছেন। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তির পর ভোরে সে মারা যায়।

এদিকে রোববার সকালে স্থানীয়রা নিহতের মা জাহানারা বেগমকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। সে নিজ হাতে ছেলেকে কুপিয়ে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। জাহানারা বেগমের এক ছেলে ৩ মেয়ের মধ্যে জসিম উদ্দিন ছিল সবার বড়। জসিম উদ্দিনের স্ত্রী ও ৩ মেয়ে রয়েছে।

বারুড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসির উদ্দিন মৃধা জানান, নিহতের মরদেহ দুপুরে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে ময়নাতদন্ত করার পর পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। নিহত জসিম উদ্দিনের স্ত্রী সামছুন্নাহার বাদী হয়ে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...