কুমিল্লায় পুলিশ কর্মকর্তার বাসায় গৃহপরিচারিকা খুন, গৃহকর্ত্রী আটক

কুমিল্লা প্রতিনিধি :–

কুমিল্লা নগরীর কান্দিরপাড় এলাকার জেলা স্কুলের বিপরীত পাশের সমতট ল্যাগাসি ভবনে পুলিশ কর্মকর্তার বাসায় রিনা আক্তার (১৭) নামের এক গৃহপরিচারিকা খুন হয়েছে। এ ঘটনায় ওই কর্মকর্তার স্ত্রী ও গৃহকর্ত্রী লিপি আক্তার (২৯) কে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার দুপুরে ফেনী জেলার ফুলগাজি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জাহিদ মোল্লার কুমিল্লার বাসায় এই ঘটনা ঘটে। তার স্ত্রী লিপি আক্তার নিহত গৃহপরিচারিকার লাশ কুমিল্লা সদর হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যায়। এরপর রাত সাড়ে ৭ টার দিকে তাকে বাসা থেকে পুলিশ আটক করে।

নিহত রিনা আক্তার বি-বাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার বাসিন্দা। গত প্রায় ৪ বছর ধরে পুলিশ দম্পতির বাড়িতে গৃহপরিচারিকার কাজ করে আসছিলেন।

পুলিশ দম্পতি নগরীর কান্দিরপাড় এলাকার জেলা স্কুলের বিপরীত পাশের সমতট ল্যাগাসি ভবনো তৃতীয় তলার ( সি-থ্রি) ফ্লাটে গত ৭ মাস ধরে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করছেন।

কুমিল্লা সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক সালাউদ্দিন মাহমুদ জানান, দুপুরে একজন মহিলা মৃত মেয়েটিকে নিয়ে জরুরী বিভাগে আসেন। চিকিৎসক পরীক্ষা করে দেখেন সে মৃত। এই সুযোগে মহিলাটি পালিয়ে যায়। মৃত মেয়েটির পুরো শরীরে গরম পানিতে পুড়ে যাওয়া, আঘাতের চিহৃ রয়েছে ।

তিনি জানান, হাসপাতালে নিহতের ঠিকানা হিসেবে নগরীর টমছমব্রিজ এলাকা উল্লেখ করে পুলিশ কর্মকর্তার স্ত্রী।

এদিকে দুপুর থেকে নগরীরর বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করে সন্ধ্যা ৬ টায় কুমিল্লার কর্মরত সাংবাদিকরা পুলিশ দম্পতির বাসা খুজেঁ বের করে পুলিশকে জানায় । পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।

ফেনী জেলার ফুলগাজি থানাতে কর্মরত উপ-পরিদর্শক (এসআই) জাহিদ মোল্লা জানান, তিনি শুনেছেন মেয়েটি অসুস্থ বোধ করায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায় তার স্ত্রী। তাকে কোন মারধর করা হয়েছে কিনা তা তিনি জানেন না।

গৃহকর্ত্রী লিপি আক্তারের বলেন, ‘রিনা ৪ মে রাতে ভাতের মাড় ঢালতে গিয়ে হাতের কণুই ও হাত পুড়ে যায়। আমি তাকে লিবেক-৫০০ এমজি ট্যাবলেট এনে দেই। গত ৪/৫ দিন ধরে সে আনমনা হয়ে ছিল। কোন কাজও সে করতে চাইতো না। পরে আমি গতকাল তাকে ঝাড়ু দিয়ে তার পিঠে দুটি আঘাত করি। এর বেশি কিছু করিনি। আজ সকালে বাচ্চাদের স্কুলে দিয়ে বাসায় এসে দেখি সে রান্নাঘরে পড়ে আছে। পরে আমি তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাই। হাসপাতালে ভুল ঠিকানা বলার কারণ হিসেবে তিনি জানান, ‘আমি ভয়ে ভুল বলেছি।’

কোতয়ালী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শফি উদ্দিন জানান, তার পুরো শরীরে আঘাত রয়েছে। গরম পানিতে পুড়ে গেছে। এটি হত্যাকান্ড কিনা এখন বলতে পারবো না। ময়নাতদন্তের পর বলা যাবে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...