দেবিদ্বারে তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্রী ধর্ষিত: থানায় মামলা

মোঃ আক্তার হোসেন :–

কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার সুবিল গ্রামে তৃতীয় শ্রেনীর এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। শুক্রবার রাতে ধর্ষিতার বড় ভাই বাদী হয়ে উপজেলার সুবিল ইউনিয়নের রাঘবপুর গ্রামের তবদল মেম্বরের ছেলে মালন মিয়া (৪২) কে অভিযুক্ত করে এ মামলা দায়ের করেন। ধর্ষিতা উপজেলার ফতেহাবাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্রী। দেবিদ্বার থানার মামলা নাম্বার-৯, তারিখ- ১৭/০৪/২০১৫ ইং।
মামলার অভিযোগ ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ৩ এপ্রিল সুবিল গ্রামের এক মাছ ব্যবসায়ীর ৩য় শ্রেনীর স্কুল পড়–য়া মেয়ে গরুর খাবারের জন্যে ঘাস কাটতে জমিতে যায়। জমির পাশে জনৈক হোসেন মেম্বারের পুকুর পাড়ে রাঘবপুর গ্রামের তবদল মেম্বরের ছেলে মালন মিয়া ওই স্কুল ছাত্রীকে নির্জন জায়গা ও একা পেয়ে জোরপূর্বক ভাবে ধর্ষণ করেন। এক পর্যায়ে ওই স্কুল ছাত্রী আত্ব চিৎকার করলে ধর্ষণকারী ওই ঘাতক পালিয়ে যায়। গ্রাম্য সালিশে বিষয়টি মিমাংসার চেষ্টা করেও কোন সমাধান না হওয়ায় এবং এলাকায় জানাজানি হওয়ায় গত শুক্রবার (১৭ এপ্রিল) রাতে থানায় এ অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনার পর থেকেই ধর্ষক মালন মিয়া পলতক রয়েছেন। শনিবার দুপুরে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভিকটিমের ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পূন হয়েছে বলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই জাকির সিকদার এ প্রতিবেদককে নিশ্চিত করেন।
মামলার বাদী ও ধর্ষিতার ভাই জানান, ঘটনার পর থেকে এলাকার মাতব্বররা বিচার করে দেওয়া আশ্বাস দিলেও বিবাদী প্রভাবশালী হওয়ায় বিচার পাইনি। তাই মামলা দায়ের করতে এতদিন বিলম্ব হয়েছে।
এ ব্যাপারে দেবিদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ মিজানুর রহমান কুমিল্লাওয়েব ডটকম’কে জানান, ধর্ষণে বিষয়টি এলাকার মাতব্বররা গোপন রেখে সমাধানের চেষ্টা করেছিল। আমরা অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথেই মামলা রেকর্ড পূর্বক আসামীকে গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে। আসামীর বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...