বুড়িচংয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর হামলা, বাড়ি ঘর ভাংচুর ও ফলজ গাছ কর্তন : প্রাণ নাশের হুমকী থানা অভিযোগ

মো. জাকির হোসেন :–

বীর মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের উপর হামলা চালিয়ে বাড়ি ঘর ভাংচুর ও ফলজ কাঁঠাল গাছ, কলা গাছ কর্তন করে প্রাণনাশের হুমকী দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। এঘটনাটি ঘটেছে কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ঘিলাতলা গ্রামে। এ বিষয়ে বুড়িচং থানা একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বুড়িচং উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের ঘিলাতলা গ্রামের মৃত ছেলামত খানের ছেলে বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলামের সাথে তার আপন ভাই মোঃ আঃ রহমান খানের সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। বিভিন্ন সময়ে আঃ রহমান তার ভাই বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম খান পরিবারের লোকজনকে গালমন্দ, মারধর ও হত্যার হুমকী ধামকী প্রদশন করে আসছে। বিভিন্ন সময়ে গাছ গাছালী কাটিয়ে ক্ষতি সাধন করে থাকে আঃ রহমান। গত ১৪ এপ্রিল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আঃ রহমান কুমিল্লার আলেখাচর থেকে বাড়িতে আসে। বীর মুক্তিযোদ্ধা সহিদুল ইসলাম খানের পরিবারের লোকজনকে লক্ষ্য করে গালমন্দ শুরু করে। এসময় সহিদুল ইসলাম তাকে জিজ্ঞাসা করলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে বসত ঘরের দরজা, জানালা, বেড়া কোপাইয়া ভাংচুর করে এবং কয়েকটি কাঠাল গাছ ভেঙ্গে প্রায় কয়েক হাজার টাকা ক্ষতিসাধন করে। লাঠি সেটা নিয়ে মেরে ফেলার হুমকী দিয়ে যায়। আঃ রহমান কুমিল্লা আলেখাচর এলাকা বসবাস করে আসছে। সে তার পৈত্রিক সম্পক্তির কিছু জায়গা বিক্রয় নামে সহিদুল ইসলাম খানের কাছে টাকা নিয়ে চলে যায়। টাকা ফেরত না দিয়ে অন্য কারো নিকট জায়গা বিক্রয় করার পায়তানা চালাছে। এ টাকা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এবিষয়ে বুড়িচং থানা একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...