নাঙ্গলকোটে ডাকাতের হাতে গৃহকর্তা খুন; স্বর্ণালংকার ও টাকা লুট

মো. আলাউদ্দিন :–

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে গত শনিবার রাতে ডাকাতের হাতে আবুল খায়ের মিয়াজী নামের এক গৃহকর্তা খুন হয়েছে। সে উপজেলার রায়কোট ইউপির মালিপাড়া গ্রামের মৃত সেকান্দর আলী মিয়াজীর ছেলে।
পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, শনিবার গভীর রাতে সিঁধ কেটে ঘরে টুকে ডাকাতি করার উদ্দেশ্যে একদল ডাকাত আলমিরা ভাঙার চেষ্টা করে। আলমিরা ভাঙার শব্দে গৃহকর্তা আবুল খায়ের মিয়াজী ও তার স্ত্রী কুলছুম বেগমের ঘুম ভেঙ্গে যায়। এসময় তারা ডাকাত দেখে চিৎকার করার চেষ্টা করলে ডাকাতরা তাদের উপর ঝাপিয়ে পড়ে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে তাকে হত্যার চেষ্টা করে। এতে গৃহকর্তা আবুল খায়ের মিয়াজী (৪০) ঘটনাস্থলেই মারা যায় এবং গৃহকর্তী কুলছুম বেগম (৩০) অজ্ঞান হয়ে পড়ে থাকে। দু’জনের মৃত্যু নিশ্চিত ভেবে ডাকাত দল ঘরের আলমিরা থেকে ৬ ভরি স্বর্ণালংকার ও নগদ ২ লক্ষ টাকা লুট করে নিয়ে যায়। গতকাল রবিবার ভোরে তাদের ঘরের পাশ্ববর্তী রাস্তা দিয়ে ফজরের নামাজ পড়ার জন্য মুসুল্লিরা মসজিদে যাওয়ার সময় কুলছুমের আত্ম-চিৎকার শুনতে পেয়ে তাকে আশংকাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে এবং তার স্বামী আবুল খায়ের মিয়াজীকে মৃত অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।
নাঙ্গলকোট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম পিপিএম জানান, এটি কোন ডাকাতির ঘটনা নয়। চুরি করার উদ্দেশ্যে তিন জন চোর সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে আলমিরা ভাঙ্গার চেষ্টা করলে গৃহকর্তা ও গৃহকর্তী ঘুম থেকে জেগে ওঠে। চোরদের চিনে ফেলায় ক্ষিপ্ত হয়ে তারা গৃহকর্তা ও গৃহকর্তীকে হত্যার চেষ্টা করে। এ সময় গৃহকর্তা আবুল খায়ের নিহত হয় এবং স্থানীয়রা গৃহকর্তী কুলছুম বেগমকে আশংকাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। আমরা হাসপাতাল ও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...