অধ্যাপক আব্দুল মজিদ কলেজের পরীক্ষা কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও ৪ ভূয়া পর্যবেক্ষককে জেল-জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত

মো. হাবিবুর রহমান,মুরাদনগর :–

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার রামচন্দ্রপুর অধ্যাপক আব্দুল মজিদ কলেজের এইচএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রে অনিয়মের অভিযোগে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও ৪ ভূয়া পর্যবেক্ষককে পাবলিক পরীক্ষা নিয়ন্ত্রন আইন ১৯৮০ এর ১০ ও ১৩ ধারার আলোকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে দেড় মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মনসুর উদ্দিন।
জানা যায়, রামচন্দ্রপুর অধ্যাপক আব্দুল মজিদ কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা প্রতি বছরের মতো এবারো ভেন্যু কেন্দ্র হিসেবে পাশের রামচন্দ্রপুর রামকান্ত উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষা দিয়ে আসছে। ওই ভেন্যু কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও রামচন্দ্রপুর অধ্যাপক আব্দুল মজিদ কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ফেরদৌস আহমেদ চৌধুরীর যোগসাজসে রামচন্দ্রপুর প্রভাতী শিশুবাগ কিন্ডার গার্টেনের ৪ জন শিক্ষক দিয়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে কক্ষ পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব পালন করছে। উক্ত খবরের ভিত্তিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ মনসুর উদ্দিন বাংলা দ্বিতীয়পত্র পরীক্ষা চলাকালে সোমবার দুপুরে ঘটনাস্থলে গিয়ে দায়িত্ব পালনকালে ওই ৪ ভূয়া পর্যবেক্ষককে হাতেনাতে ধরে ফেলেন। এ সময় তিনি ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে পাবলিক পরীক্ষা নিয়ন্ত্রন আইন ১৯৮০ এর ১০ ও ১৩ ধারার আলোকে রামচন্দ্রপুর প্রভাতী শিশুবাগ কিন্ডার গার্টেনের শিক্ষক সাইফুল ইসলাম মামুন, আল মামুন, ঝরনা রানী সাহা, ডালিয়া কবিরকে ৫ হাজার টাকা করে ২০ হাজার জরিমানা অনাদায়ে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও রামচন্দ্রপুর অধ্যাপক আব্দুল মজিদ কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ফেরদৌস আহমেদ চৌধুরীকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন। একই সাথে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও রামচন্দ্রপুর অধ্যাপক আব্দুল মজিদ কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ফেরদৌস আহমেদ চৌধুরীর বিষয়ে পরবর্তী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্বে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড কুমিল্লার চেয়ারম্যান ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রককে অবহিত করেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ মনসুর উদ্দিন জানান, অভিযুক্ত ৪ ভূয়া পর্যবেক্ষককে জিজ্ঞাসাবাদকালে তারা অপরাধ শিকার করেন। ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও রামচন্দ্রপুর অধ্যাপক আব্দুল মজিদ কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ফেরদৌস আহমেদ চৌধুরী অপরাধের সদূত্তর জবাব দিতে পারেননি। পরে দন্ডপ্রাপ্ত ৫ জনই তাৎক্ষনিক ৩০ হাজার টাকা জরিমানা পরিশোধ করে বিনাশ্রম কারাদন্ড থেকে রেহাই পান।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...