কুমিল্লায় স্থাপিত হয়েছে তিন গুণী ব্যক্তির প্রতিকৃতি

কুমিল্লা প্রতিনিধি :—
অনেকটা দেরিতে হলেও কুমিল্লা জেলা প্রশাসন, জেলা পরিষদ ও জেলার বিভিন্ন প্রগতিশীল সংগঠনের সহযোগিতায় স্থাপিত হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও ভাষা সৈনিক শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্তের প্রতিকৃতি। বাংলাদেশ, বাংলা ভাষা ও আমাদের মহান স্বাধীনতার সঙ্গে ওঁতপ্রোতভাবে জড়িত এই তিন মহান ব্যক্তির প্রতিকৃতি কুমিল্লা মহানগরীর দর্শনীয় স্থানে দৃষ্টিনন্দন করে স্থাপন করা হয়েছে।

গত ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসে প্রতকিৃতিগুলোর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করার পর থেকে এসব গুণী ব্যক্তিদের প্রতিকৃতি দেখতে এবং তাঁদের জীবনী ও অবদানের বিষয় জানার জন্য কোমলমতি ও বিভিন্ন বয়সের শিক্ষার্থী, শিশু-কিশোরসহ সকল শ্রেণীর দর্শনার্থীদের আগ্রহ যেমন বেড়েছে তেমনি প্রতিদিন বিকেলে প্রতিকৃতিগুলো ঘিরে আনাগোনা বেড়েছে। এর আগে ১৯৯৩ সালের ২৫ মে কুমিল্লা সার্কিট হাউস সড়কের পার্শ্বে ও জেলা শিল্পকলা একাডেমির দক্ষিণ-পশ্চিম কোণে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের স্মৃতিস্তম্ভ ‘চেতনায় নজরুল’ স্থাপন করা হয়।

জানা যায়, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’ এর প্রতকিৃতি স্থাপন করা হয়েছে কুমিল্লা মহানগরীর ধর্মসাগরপাড়স্থ নগরপার্কের পশ্চিম গেইটে। ‘হৃদয়ে রবীন্দ্রনাথ’ প্রতিকৃতি কুমিল্লা জেলা শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে ও ‘ভাষা সৈনিক ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত’ প্রতকিৃতি কুমিল্লা নগরীর শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামের মূল ফটকে স্থাপন করা হয়েছে।

দেশের খ্যাতনামা ভাস্কর্য শিল্পী উত্তম গুহ দৃষ্টিনন্দন করে এ তিনটি প্রতিকৃতি নির্মাণের কাজ করেছেন। গত ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসে তিনটি প্রতকিৃতির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন স্থানীয় এমপি আ.ক.ম বাহাউদ্দিন।

কুমিল্লার বিশিষ্টজনেরা বলছেন, শিক্ষা-সংস্কৃতির পাদপীঠখ্যাত ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন জেলা কুমিল্লা। এই কুমিল্লায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বহুবার এসেছেন। বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরেরও স্মৃতিধন্য এই কুমিল্লা। পাকিস্তান গণপরিষদে বাংলা ভাষার প্রথম প্রস্তাবক শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্তসহ অনেক গুণীজন কুমিল্লায় জন্মেছেন। তাঁরা দেশের জন্য অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছেন।

কুমিল্লার জেলা প্রশাসক মো. হাসানুজ্জামান কল্লোল জানান, ‘আগামী প্রজন্মের কাছে এই তিন মহান ব্যক্তির অসামান্য অবদানের কথা তুলে ধরার লক্ষ্যে এ প্রতিকৃতিগুলো স্থাপন করা হয়েছে। ছাত্র-ছাত্রী ছাড়াও শিশু-কিশোরসহ সকল শ্রেণির মানুষ সড়কে চলাচলের পথে তিন ব্যক্তির প্রতিকৃতিগুলো নজরে এলে তাঁদের শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করবে এবং নতুন প্রজন্মকে বাঙালি জাতির ইতিহাস ও ঐতিহ্য জানাতে সাহায্য করবে।

ভারতীয় উপ-মহাদেশের প্রখ্যাত সঙ্গীতজ্ঞ শচীন দেব বর্মনের (এসডি বর্মন) প্রতিকৃতি সহসা স্থাপন করা হবে।’ কুমিল্লা জেলা পরিষদের প্রশাসক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব ওমর ফারুক বলেন, বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ বাংলাদেশ-বাংলা ভাষা ও আমাদের মহান স্বাধীনতার সঙ্গে ওঁতপ্রোতভাবে জড়িত তিন মহান ব্যক্তির প্রতিকৃতি স্থাপিত হওয়ায় সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ তাঁদের জীবনী ও অবদানের ইতিহাস জানার জন্য আরও উজ্জীবিত হবে।’

কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ড মডেল কলেজের ছাত্রী ফারহানা সারাবিন স্বর্ণা, জিলা স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র মীর সামিউল আলম রাজন, নবাব ফয়জুন্নেছা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস, রাফিকা হায়দার মিল্কি ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্র জাহিদ হাসান জামিলসহ নগরীর কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের কাছে জানতে চাইলে তারা জানায়, ‘বাবা-মায়ের কাছ থেকে ও বই-পুস্তকের মাধ্যমে তাঁদের সম্পর্কে জেনেছি। এখন এ প্রতিকৃতি দেখে তাঁদের সম্পর্কে জানার আরও আগ্রহের সৃষ্টি হয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...