নাঙ্গলকোটে ঘনঘন লোডশেডিংয়ে জনজীবন অতিষ্ঠ

 

মো. আলাউদ্দিন :–
কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে চলছে ভয়াবহ লোডশেডিং। গত কয়েকদিন থেকে নাঙ্গলকোট পৌর সদরসহ উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে কোনো প্রকার বিজ্ঞপ্তি ছাড়াই ঘণ্টার পর ঘণ্টা বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকে। ঘণ্টায় অন্তত ১০-১২ বার করে বিদ্যুৎ আসে আর যায়। এতে করে চলতি এইচএসসি, আসন্ন ডিগ্রি ও অনার্স পরীক্ষার্থীদের পড়ালেখার বিঘœ ঘটছে। বিদ্যুতের অভাবে সেচ দিতে না পারায় ফসলি জমিগুলো শুকিয়ে চৌচির হয়ে গেছে। বিদ্যুতের উপর নির্ভরশীল স্টুডিও, ফটোস্ট্যাট, টেলিকম, কম্পিউটার দোকানিরা আর্থিকভাবে চরম ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। ঘনঘন বিদ্যুৎ আসা-যাওয়া করায় বিদ্যুৎচালিত যন্ত্রপাতিগুলো নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করছেন অনেকেই।
নাঙ্গলকোট পৌর বাজারের শাপলা স্টুডিও’র সত্ত্বাধিকারী কবির হোসেন ও মা-মনি ইলেকট্রনিক্সের মালিক ইয়াছিন জানান, লাইনে কোনো সমস্যা নেই। যদি লাইনে কোনো সমস্যা থাকত, তাহলে একেবারেই বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকত। এভাবে ঘনঘন বিদ্যুৎ আসা-যাওয়া করায় আমরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি। আমাদের বিদ্যুৎচালিত যন্ত্রপাতিগুলো নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। আমরা এর স্থায়ী প্রতিকার চাই।
কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর নাঙ্গলকোট জোনাল অফিসের ডিজিএম টি.এম মেজবাহ উদ্দিন গতকাল শনিবার জানান, কালবৈশাখী ঝড় শুরু হওয়ার আগেই আমরা ত্র“টিপূর্ণ লাইনগুলো মেরামত করছি। এতে করে কিছুটা লোডশেডিং হচ্ছে। এছাড়া কেন্দ্র থেকে কম বিদ্যুৎ সরবরাহ করার কারণেও কিছুটা লোডশেডিং হচ্ছে। আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হবে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...