কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলা; ২২ দিন ধরে হাসপাতালে ভাগ্নে ও মামী

 

মো. আলাউদ্দিন, নিজস্ব প্রতিবেদক:–
কুমিল্লার মনোহরগঞ্জের হাটিরপাড় গ্রামের বড় বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলার ২২দিন পার হলেও আহত ভাগ্নে ও মামী এখনও হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে কাতরাচ্ছে। গত ৩ মার্চ সম্পত্তি সংক্রান্ত বিরোধে ভাগ্নে নজরুল ইসলাম ও মামী লাহেলা বেগমকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করে সন্ত্রাসীরা।
প্রত্যক্ষ্যদর্শী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা সদরের হাটিরপাড় গ্রামের বড় বাড়ির খোকন মিয়ার সঙ্গে তাঁর ভাই মোহাম্মদ হোসেনের দীর্ঘদিন ধরে বাড়ির সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। গত ৩ মার্চ সকালে সম্পত্তি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে হোসেন তাঁর লোকজন নিয়ে খোকন মিয়ার ঘরে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে ভাংচুর করতে থাকে। এ সময় খোকন মিয়ার ছেলে নজরুল ইসলাম তাঁদের বাধা দিলে ওই সন্ত্রাসীরা নজরুলকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে। নজরুলকে বাঁচাতে তাঁর মামী লাহেলা বেগম ছুঁটে গেলে ওই সন্ত্রাসীরা তাকেও এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করে। এসময় স্থানীয়রা ছুটে এসে আহতদের আশংকাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।
এদিকে এ ঘটনায় আহত লাহেলা বেগমের স্বামী আবুল কাসেম বাদী হয়ে মো.হোসেন, ওয়াসীম, আবদুর রহিম, রিপনসহ ৭ জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে এ ঘটনার মূল হোতা মোহাম্মদ হোসেনকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে প্রেরণ করে।
মামলার বাদী আবুল কাসেম জানান, ওই সন্ত্রাসী হামলায় আহত হয়ে তাঁর স্ত্রী লাহেলা বেগম ও ভাগ্নে নজরুল ইসলাম এখন হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে কাতরাচ্ছে। তাঁরা কিছুতেই এ সন্ত্রাসী হামলার কথা ভুলতে পারছে না। এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন মনোহরগঞ্জ থানার ওসি আবদুল হাই সরকার।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...