মনোহরগঞ্জে জায়গা নিয়ে বিরোধের জের ধরে ঘরবাড়ি ভাংচুর ও লুটপাত

আকবর হোসেন, মনোহরগঞ্জ প্রতিনিধি:–

মঙ্গলবার কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে জায়গা নিয়ে বিরোধের জের ধরে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাতের ঘটনা ঘটেছে। জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে উপজেলার মৈশাতুয়া ইউনিয়নের হাটিরপাড় গ্রামের মৃত মোখলেছুর রহমানের ছেলে মোঃ হোসেন (২৭) ও মোঃ মনতাজ মিয়া (৪৫) এর ঘরবাড়ি লুটপাত ও ব্যাপক ভাংচুর, ঘরের টিন, দরজা, জানালা কেটে ফেলা হয়। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মোঃ হোসেন জানান, আমার চাচা মৃত মোকছেদুর রহমানের ছেলে কবির হোসেন (৩০), আবুল কাশেম (৪৫), মঞ্জুর আলম (২৬) ও আরেক চাচা মৃত মফিজুর রহমানের ছেলে ছাদেরুল আমিন (২৪) সহ তাদের পরিবারের লোকজন আমাদের দুই ভাইয়ের ঘর দরজা ভাংচুর করে এবং ঘরে থাকা মুল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে যায়। এ ঘটনাটি ঘটেছে তাদের জায়গায় একটু পানি ফেলাকে কেন্দ্র করে। তারা দীর্ঘ ১২ বছর থেকে জায়গা নিয়ে আমাদের পরিবারের উপর সবসময় অত্যাচার অবিচার করে যাচ্ছে। কিন্তু প্রকৃত জায়গার মালিক আমরা নিজেরাই। তাছাড়াও তারা আমার ঘরের পিছনে থাকা আমার জায়গা থেকে মাটি কেটে নিয়ে গর্ত করে রাখে। এমতাবস্থায় আমার নিজের ঘরটি ভাঙ্গার উপক্রম হওয়ায় বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এ ব্যাপারে আমরা সামাজিকভাবে কয়েকদফা শালিশ ডাক দিলে তারা শালিশ অমান্য করে দফায় দফায় আমাদের মারধর করে। কিছুদিন আগে যখন জায়গা মাপার কথা বলি তখন তারা আমাদের উপরে হামলা করে। আমাদের ঘরে ইট,পাটকেল ছুড়ে মেরে আমাদের ঘর দরজা ভাংচুর করা হয়। হোসেন আরো জানান, আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তিতে আমরা বসবাস করছি। কিন্তু তারা সবসময় আমাদেরকে বলে, আমাদের জায়গা থেকে আমরা চলে যেতাম। এ ব্যাপারে আমরা লিখিতভাবে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোস্তফা মোরশেদকে অবহিত করি। পরে আমার চাচাতো ভাইয়েরা সে কথা শুনতে পেরে আমাদের সাথে মীমাংসা করবে বলে আশ্বাস দেন। কিন্তু তারা কোন মীমাংসা না করে উল্টো আমাদের জায়গা জবর দখল করে নিতে চায়। আজকের ঘটনা আমরা মৈশাতুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে জানিয়েছি। এমতাবস্থায় আমরা দুইভাই ও আমাদের পরিবারের লোকজন চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। তিনি আরো জানান, এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...