মুরাদনগরে আ’লীগের দু’গ্রুপের গোলাগুলি পাঁচ পুলিশ সহ আহত ৩৫ : ১৮০ জনের বিরুদ্বে থানায় মামলা

মুরাদনগর প্রতিনিধি :–

এলাকায় প্রাধান্য বিস্তার ও অর্থ ভাগাভাগি নিয়ে বিরোধের জের ধরে মুরাদনগর উপজেলা সদরে গতশুক্রবার রাত সোয়া ৭টা হতে রাত ৯টা পর্যন্ত আ’লীগের মাসুদ গ্রুপের ফারুক ও আশরাফ গ্রুপের আশরাফের নেতৃত্বে অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে দফায় দফায় সংঘর্ষ, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও গোলা গুলির ঘটনা ঘটে। এ সময় উভয় পক্ষের সংঘর্ষে ৫জন পুলিশ সহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ ১৪৩ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে উভয় গ্রুপের ২৯জনের নাম উল্লেখ সহ আরো অজ্ঞাত ১৫০ জনের বিরুদ্বে মারাত্বক অস্ত্র-শস্ত্রে বেআইনী ভাবে দলবদ্ব হইয়া দাঙ্গা হাঙ্গামা করে কর্তব্য কাজের সময় পুলিশের উপর হামলা করে আহত করার কারনে মুরাদনগর থানায় একটি মামলা দায়ের করে।
স্থানীয় সুত্র ও পুলিশ জানায় শুক্রবার উপজেলার সদরের পাশে নয়াকান্দি ও রহিমপুর গোমতী বেরী বাধের ভিতরে পুকুর ও ডোবায় মাছ ধরা ,অর্থ ভাগাভাগি ও এলাকায় প্রধান্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আ’লীগের মাসুদগ্রুপের ফারুক ও আশরাফ গ্রুপের মাঝে সংঘর্ষ ও উভয় গ্রুপ শতাধিক রাউন্ড গোলাগুলি করে এলাকায় চরম আতংকের সৃষ্টি করে।
পরে পুলিশ শতাধিক রাউন্ড রাউন্ড গুলি ছোড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। উভয় গ্রুপের সংঘর্ষকালে মুরাদনগর থানার এস আই সিদ্দিক, এস আই মাহমুদ, এস আই আনোয়ার, এ এস আই মাহফুজ ও কন্সটেবল সানাউল্লা সহ ৫জন পুলিশ ও উভয় গ্রুপের জসিম, মোতালেব, বাদসা, সালাউদ্দিন সহ অন্তত ১০ জন আহত হয়।
উভয় পক্ষের শতাধিক রাউন্ড গোলাগুলির বিষয়টি পুলিশ অস্বীকার করলে ও প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন উভয় পক্ষের গোলাগুলির কারনে স্থানীয় লোকজন ও বাজার ব্যবসায়ীরা দিকবিদিক ছোটাছুটি করতে থাকে।
এ বিয়য়ে মুরাদনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মো: মিজানুর রহমান জানান, এ সংঘর্ষের সময় ৫জন পুলিশ আহত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ প্রায় ১৪৩ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। ইতি পূর্বে ও এই উভয় গ্রুপের মাঝে সংঘর্ষ হয়েছে। এ বিষয়ে শনিবার থানায় মামলা হয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...