কুমিল্লায় অবরোধ হরতাল ঝিমিয়ে পড়েছে : যান চলাচল সহ স্বাভাবিক কর্মব্যস্ত মানুষ

মো.জাকির হোসেন :–

বিএনপি সহ ২০ দলের ডাকা টানা অবরোধ আর হরতাল ঝিমিয়ে পড়েছে কুমিল্লায়। মহাসড়ক সহ জেলার সর্বত্র যান চলাচল স্বাভাবিক সহ মানুষের কর্মব্যস্ততাও বাড়ছে আগের মত। নাশকতা ও ভাংচুর কম থাকায় প্রতিদিনই মানুষের কাজকর্মও স্বাভাবিক হতে চলছে।
বিভিন্ন স্থান ঘুওে পাওয়া তথ্যে জানা যায়,গত ৫ জানুয়ারী থেকে বিএনপি-জামায়াত সহ ২০ দলের ডাকা দেশব্যাপী টানা অবরোধ শুরু হলে জেলার পরিবহন,হোটেল সহ বড় বড় হাটবাজারে এর প্রভাব পড়তে শুরু করে। দেশের অন্যতম বৃহৎ তরকারী বাজার নিমসার কাচাঁ বাজাওে মালামাল ক্রয়-বিক্রয় অনেকটা স্থবীর হয়ে পড়ে। একইভাবে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ,পাশাপাশি মহাসড়কের পাশে গড়ে উঠা বিভিন্ন শ্রেনীর হোটেল ব্যবসায়ও ধ্বস নামে। যানবাহন চলাচল বন্ধ,জনগনের যাতায়াত না থাকায় এসকল হোটেল ব্যবসাও অনেকটা ঝিমিয়ে পড়ে। একইভাবে নাশকতার আশঙ্কায় মানুষ নিত্য প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইওে না যাওয়ায় যাবতীয় কাজেই স্থবীরতা নেমে আসে। ফলে পরিবহন,হোটেল সহ বিভিন্ন ব্যবসার ধ্বস নামা ছাড়াও এর সাথে সংশ্লিষ্ট হাজার হাজার মানুষের রুটি-রুজিতেও আধাত আসে। যানবাহন,হোটেল বন্ধ হয়ে পড়ায় বেকার হয়ে পড়ে হাজার হাজার শ্রমিক কর্মচারী। পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করতে হচ্ছে তাদের। অবরোধ-হরতালে অনেক হোটেল মালিক লোকসান গুনে ব্যবসা ছেড়ে দিয়েছে। তবে গত দু’তিন ধওে মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক সহ মানুষ নাশকতা উপেক্ষা কওে কর্মব্যস্ত হয়ে পড়ায় প্রান চাঞ্চল্য ফিওে এসেছে সর্বক্ষেত্রে। এরই মাঝে কুমিল্লা থেকে ঢাকাগামী বিলাস বহুল বাস এশিয়া লাইন,তিশা পরিবহন নিয়মিত ঢাকা চলাচল শুরু করেছে। কুমিল্লা থেকে বিভিন্ন উপজেলা যেমন, দাউদকান্দি, হোমনা, মুরাদনগর, কোম্পানিগঞ্জ, বরুড়া, লাকসাম, নাঙ্গলকোট, চৌদ্দগ্রাম সহ বিভিন্নস্থানেও বাস চলাচল স্বাভাবিক হয়ে আসছে। যান চলাচল বেড়ে যাওয়ায় সিএনজি পাম্প ও পেট্রোল পাম্পগুলোতেও ভীড় বেড়েছে। একই সাথে কিছু কিছু হোটেলেও ব্যবসা স্বাভাবিক হয়ে আসছে। যান চলাচল বেড়ে যাওয়ায় নিমসার কাঁচা বাজারেও ভীড় পরিলক্ষিত হচ্ছে আগের মত। এদিকে যান চলাচল বেড়ে যাওয়ায় মানুষও কর্মব্যস্ত হয়ে পড়েছে আগের মত । অবরোধের আগের মত প্রানচাঞ্চল্যে মুখরিত আবারো কুমিল্লা বাসী। অবরোধ,হরতাল ঝিমিয়ে পড়ায় পাশাপাশি নাশকতা অনেকটা নিয়ন্ত্রনে থাকায় লোকজনের মাঝে আতঙ্কেও রেশও এখন আর নেই। সুত্র জানায়,অবরোধ হরতাল যখন ঝিমানো তখনো কিন্তু আইন প্রয়োগকারী সংস্থার লোকেরা বিরামহীনভাবে কর্তব্য পালন কওে যাচ্ছে। মহাসড়ক,মহানগর সহ জেলার সর্বত্র গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বিজিবি,র‌্যাব,পুলিশ,আনসার সদস্যরা নিয়মিত টহল দিচ্ছে। আর এই নিরাপত্তা টহলের মাঝে মানুষও নিজেদেও নিরাপদ মনে কওে প্রতিদিনই অবরোধ হরতাল উপেক্ষা কওে নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রে ব্যস্ত হয়ে পড়ছেন।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...