২০ মিনিট ‘থমকে’ গেল কুমিল্লা : ধ্বংসাত্বক রাজনীতি ও নাশকতার বিরুদ্ধে এমপি বাহারের ডাকে মানববন্ধন

কুমিল্লাওয়েব ডেস্ক :–

জামাত-বিএনপির নাশকতার প্রতিবাদ জানিয়ে রাস্তায় নেমে এলো কুমিল্লার মানুষ। রোববার বেলা ১২টা থেকে ১২টা ২০ মিনিট পর্যন্ত থমকে গেল পুরো কুমিল্লা নগর। কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহারের আহ্বানে রাস্তায় নেমে নাশকতার প্রতিবাদ জানায় প্রায় হাজারো মানুষ। নারী-পুরুষ, স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রী, ব্যবসায়ি, বিভিন্ন দলের রাজনৈতিক নেতাকর্মী, সাংস্কৃতিক কর্মী, শিক্ষক, সাংবাদিক, মুক্তিযোদ্ধা হস সকল শ্রেণি পেশাজীবী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিদের প্রতিবাদে পুরো কুমিল্লা নগর জুড়ে তৈরি হয় মানবপ্রাচীর। কুমিল্লা নগরের প্রানকেন্দ্র কান্দিরপাড় থেকে টমসমব্রীজ, শসনগাছা, চকবাজার, সার্কিট হাউজ রোড, রানীর বাজার ধর্মপুর, রাজগঞ্জ ফৌজদারিসহ নগরের চারপাশের সকল সড়ক পরিণত হয় মানবপ্রাচীরে। হাতে হাত ধরে সকল মানুষ নাশকতার প্রতিবাদ জানিয়ে দাঁড়িয়ে থাকেন রাস্তার দুই পাশে।
মানববন্ধন চলাকালে নগরীর প্রাণকেন্দ্র কান্দিরপাড় পূবালী চত্ত্বরে দাঁড়িয়ে সাংসদ হাজী আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিশন-২০২১ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। ২০০৮ সালে সংসদ নির্বাচনের আগে তিনি যেসব প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, তা কার্যকর করেছেন। তিনি যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার করেছেন। জননেত্রী শেখ হাসিনা যখন মানবতা বিরোধী অপরাধের উদ্যেগ গ্রহণ করেন, তখনই একাত্তরের ঘাতক জামাত-শিবির এবং তাদের দোসররা যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচানোর জন্য সারাদেশব্যাপি তান্ডব শুরু করেছে। পেট্রোল বোমা মেরে সাধারন মানুষ ও শ্রমিকদের হত্যা করছে। দেশে চলমান এই নাশকতা কর্মকান্ডের নেতৃত্ব দিচ্ছেন জঙ্গিবাদ আর সন্ত্রাসের রানী বেগম খালেদা জিয়া। সন্ত্রাস-সহিংসতা ,পেট্রোলবোমা সব কিছুই চলছে খালেদা জিয়ার নির্দেশে। দেশের মানুষ এ অবস্থা খেকে পরিত্রান চায়। দেশে বোমাবাজি ও সহিংসতা বন্ধ করতে হলে খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার করতে হবে ।
তিনি বলেন, এখন যে সহিংস আন্দোলন চলছে, এটা কোন আন্দোলন নয়। এটা মানবতা বিরোধী অপরাধ। জামায়াত-শিবির বাংলাদেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করেনা। তাদের সাথে কোন আপোষ নেই। জামায়াত-শিবির সারাদেশে তান্ডব করেছে। কিন্তু কুমিল্লায় তাদের আমি তা করতে দেইনি। আমার কারনে তারা কোন নাশকতা করতে পারেনি। আগামীতেও কুমিল্লায় কেউ নাশকতা চালাতে পারবে না ।
এমপি বাহার আরো বলেন, শান্তির কুমিল্লাকে আমি অশান্ত করতে দেবোনা। সহিংসতার রাজনীতিকে প্রতিরোধ করতে হবে। শান্তির জন্য মানববন্ধনে অংশ নেওয়ার জন্য নগরবাসীকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন প্রতিষ্ঠার পর কুমিল্লা বিভাগ করার উদ্যেগ নিয়েছেন। ইনশাল্লাহ কুমিল্লা বিভাগ বাস্তবায়ন হবেই। বিভাগ বাস্তবায়নের জন্য যদি আপনাদের সমর্থনের প্রয়োজন হয়, তখন আজকের মতোই আপনারা আমার পাশে দাঁড়াবেন।
মানববন্ধন কর্মসূচি শেষে কান্দিরপাড় পূবালী চত্ত্বরে আয়োজিত ওই সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের আদর্শ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ আবদুর রউফ, যুগ্ম-আহবায়ক সফিকুল ইসলাম শিকদার, জেলা সেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক আবদুল হাই বাবলু। এ সময় উপস্থিত ছিলেন যুবনেতা আব্দুল্লা আল মাহমুদ সহিদ, ভাইস চেয়ারম্যন আমিনুল ইসলাম টুটুল, আনিসুর রহমান মিঠু প্রমুখ।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply