বন্দুকযুদ্ধে নিহত সন্ত্রাসী জিসানের লাশ কুমিল্লায় কবর থেকে ৭দিন পর উত্তোলন করে লক্ষ্মীপুরে স্থানান্তর

মো. কামাল উদ্দিন, কুমিল্লা :–

কুমিল্লায় র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত সন্ত্রাসী সোলাইমান উদ্দিন জিসানের লাশ ঘটনার ৭দিন পর কুমিল্লা মহানগরীর টিক্কারচর কবর থেকে উত্তোলন করে লক্ষ্মীপুরে স্থানান্তর করা হয়েছে। আদালতের নির্দেশে আজ বৃহস্পতিবার সকালে ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতির লাশ উত্তোলনের পর তার মা ও স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরে তার লাশ অ্যাম্বুলেন্সে করে লক্ষ্মীপুর জেলার চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়নের পশ্চিম লতিফপুর গ্রামের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হয়।
জানা যায়, গত ২২ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার গভীর রাতে কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার পুটিয়া নামক এলাকায় র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয় লক্ষ্মীপুরের জিসান বাহিনীর প্রধান শীর্ষ সন্ত্রাসী সোলাইমান উদ্দিন জিসান। পরে র‌্যাব তার লাশ দাউদকান্দি থানা পুলিশের নিকট হস্তান্তর করলে পরদিন পুলিশ ময়নাতদন্ত শেষে বেওয়ারিশ হিসেবে লাশটি দাফনের জন্য কুমিল্লাস্থ আঞ্জুমানে মফিদুল ইসলামের নিকট হস্তান্তর করলে ওইদিন নগরীর টিক্কারচর কবরস্থানে দাফন করা হয়। এদিকে নিহত জিসানের মা ফাতেমা বেগম তার ছেলের লাশ বেওয়ারিশ নয় উল্লেখ করে টিক্কারচর কবরস্থান থেকে লাশটি উত্তোলন করে তার নিজ বাড়ি লক্ষ্মীপুরের পারিবারিক কবরস্থানে দাফনের অনুমতি চেয়ে গত ২৭ জানুয়ারি কুমিল্লার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নাসরিন জাহানের আদালতে আবেদন করেন। আবেদনের শুনানী শেষে আদালত আঞ্জুমানে মফিদুল ইসলাম হতে লাশ উত্তোলন করে তার মায়ের নিকট হস্তান্তর করতে জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। আজ বৃহস্পতিবার ম্যাজিস্ট্রেট মো. শামীম হোসেনের উপস্থিতিতে টিক্কারচর কবর থেকে উত্তোলনের পর দাউদকান্দি থানার এসআই এনামুল হকের মাধ্যমে জিসানের লাশ তার মায়ের নিকট হস্তান্তর করা হয়। এসময় জিসানের একমাত্র মেয়ে ফারিয়া আক্তার মেহেরীন (৯), জেঠাতো ভাই নজরুল ইসলামসহ স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন। পরে লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সযোগে জিসানের লাশ লক্ষ্মীপুরের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হয়।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply