মুরাদনগর-ইলিয়টগঞ্জ সড়ক নির্মানে ব্যাবহার হচ্ছে নিম্নমানের সামগ্রী

তোফায়েল মাহমুদ, কুমিল্লা থেকে :–

সড়ক ও জনপথ বিভাগের অধীন কুমিল্লার দাউদকান্দির গৌরীপুর-হোমনা ও ইলিয়টগঞ্জ-মুরাদনগর-রামচন্দ্রপুর-স্বল্পাসড়কের নির্মান ও সংস্কারে ৬ কোটি টাকার কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্থানীয়রা বারবার দরপত্রের নিয়মানুযায়ী কাজের জন্য তাগাদা দিলেও প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতাদের দোহাই দিয়ে নিম্নমানের কাজ করে যাচ্ছে। ফলে কাজের জন্য মেয়াদ শেষের আগেই রাস্তাগুলোর ভবিষ্যত নিয়ে শংকা প্রকাশ করছে সংশ্লিষ্ট এলাকার লোকজন।
সরেজমিনঘুরে স্থানীয় সুত্রে পাওয়া তথ্যে জানা যায়, কুমিল্লা সড়ক ও জনপথ বিভাগের অধীন জেলার দাউদকান্দির গৌরীপুর-হোমনা এবং দাউদকান্দির ইলিয়টগঞ্জ-মুরাদনগর-রামচন্দ্রপুর-স্বল্পাসড়কের ৩১ কিলোমিটারকাজের জন্য সম্প্রতি দরপত্র আহবান করা হয়। উল্লেখিত কাজের ঠিকাদারী পায় আরবিএল ও এইচবি নামের দু’টি প্রতিষ্ঠান। ৬ কোটিরও অধীক টাকা মূল্যমানের এই কাজের দরপত্রে সড়ক দু’টির পূর্ণনির্মানসহ প্রটেকটিভ বিভিন্ন কাজের নির্দেশনা রয়েছে। কিন্তু ঘটনাস্থলে ঘুরে দেখা যায় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান দরপত্রের নির্দেশানুযায়ী কাজ না করে নি¤œমানের ইট, বাল, খোয়া ব্যবহার করে নির্মান কাজ করে যাচ্ছে। স্থানীয় একাধিক সুত্র নাম প্রকাশনা না করার শর্তে জানান, সঠিকভাবে কাজ করার জন্য প্রকৌশলী সহ সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারদেও বারবার বলা হলেও তারা অজ্ঞাত কারণে নাম মাত্র কাজ করে যাচ্ছে। কখনো কখনো ঠিকাদার ও প্রকৌশলীরা স্থানীয় প্রভাবশালী লোকদের ভয়ভীতি দেখায়। ফলে সাধারন মানুষ ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেনা। এ ব্যাপারে কুমিল্লা সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মুহাম্মদ সাইফ উদ্দিন জানান, আমি একদিন ওই রাস্তার মেরামতের কাজ পরিদর্শনে গিয়েছিলাম। কিছু কিছু অংশে রাস্তার নি¤œমানের কাজ আমার দৃষ্টি গোচঁর হয়েছে। আমি তাৎক্ষনিক নিম্নমানের ওই সামগ্রী গুলি সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দেই।
সংশ্লিষ্ট কাজের প্রকৌশলী এস ও মাজহারুল হক জানান, কাজে কোন অনিয়ম হচ্ছে না, আমি নিয়মিত কাজের তদারকি করছি, তিনি আরো বলেন, উক্ত রাস্তার বরাদ্দ বিগত প্রায় ৩ বছর পূর্বের। এ অবস্থায় ঠিকাদারদের বেশী চাপাচাপি করলে তারা পালিয়ে যাবার সম্ভাবনা রয়েছে। তিনি আরো জানান, দু’টি প্যাকেজে ৭ কোটি টাকার কাজ চলছে। তবে দায়িত্বশীল সুত্র নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, দু’টি প্যাকেজে মোট প্রাক্কলিত ব্যয় ৬ কোটি টাকা।
সংশ্লিষ্ট কাজের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এর স্বত্বাধিকারী জানান, আমার জিনিস পত্র সব এক নম্বর, আমি কোন নিম্নমানের কাজ করি না।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply