২৯ নভেম্বরের সমাবেশ সফল করতে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা জামায়াতের ব্যাপক প্রস্ততি

মোঃ বেলাল হোসাইন :—

আগামী ২৯ নভেম্বর বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে কুমিল্লা টাউন হলে ২০ দলীয় জোটের সমাবেশ সফল করার লক্ষ্যে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা জামায়াত এবং শিবির ব্যাপক প্রস্তুুতি গ্রহণ করেছে। নেতাকর্মীদের মাঝে বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। উপজেলার প্রায় সকল ইউনিয়নে এবং প্রত্যন্ত অঞ্চলের নেতাকর্মীরা ব্যাপক উৎসাহের সহিত অপেক্ষা করছে ২৯ নভেম্বরের সমাবেশে যোগদানের জন্য। পাশাপাশি দীর্ঘদিন থেকে প্রশাসনের কারনে আন্দোলনের মাঠে বিভিন্ন ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার কারনে উক্ত সমাবেশে তাদের শক্তি জানান দিতে চায় দলটি। বিশেষ করে দক্ষিণ কুমিল্লা জামায়াতের ঘাঁটি হিসাবে পরিচিত আর এই দক্ষিণ কুমিল্লার সাংগঠনিক শক্তির মূল প্রাণশক্তি হচ্ছে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা। পাশাপাশি জামায়াতের আমীর মতিউর রহমান নিজামী, নায়েবে আমীর আল্লামা দেলওয়ার হোসাইন সাইদীসহ গ্রেফতারকৃত সকল নেতাকর্মীদের মুক্তি এবং তাদের বিরুদ্ধে ট্রাইব্যুনাল কর্তৃক অন্যায়ভাবে বিভিন্ন রায়ের প্রতিবাদে সরকারের প্রতি চুড়ান্ত আন্দোলনের প্লাটফর্ম হিসাবে কুমিল্লার সমাবেশকে গ্রহণ করেছে নেতাকর্মীরা। ইতিমধ্যেই উপজেলার সকল ইউনিয়নে উপজেলা নেতৃবৃন্দের নেতৃত্বে ইউনিয়ন দায়িত্বশীলদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে প্রস্ততি সভা। অনুষ্ঠিত হয়েছে পেশাজীবি এবং রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় সভা।
সবাবেশের প্রস্তুুতির বিষয়ে উপজেলা জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারী এবং চৌদ্দগ্রাম পৌরসভা জামায়াতের আমীর মাহফুজুর রহমান জানান, ২৯ নভেম্বরের সমাবেশ সফল করার লক্ষ্যে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা জামায়াত ইতিমধ্যেই ভিন্ন ভিন্ন ভাবে ইউনিয়ন দায়িত্বশীলদের নিয়ে প্রস্তুতি সভা শেষ করেছে এবং আগামী ২-১ দিনের মধ্যে ওয়ার্ড থেকে শুরু করে গ্রাম পর্যায় পর্যন্ত প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হবে। তিনি আরো জানান, সমাবেশকে স্বাগত জানিয়ে এবং সফল করার লক্ষ্যে চৌদ্দগ্রাম বাজারসহ সকল বাজার এবং গুরুত্বপূর্ন এলাকায় মিছিল সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। সমাবেশ উপলক্ষ্যে চৌদ্দগ্রামে ইতিমধ্যেই উপজেলা জামায়াতের পক্ষ থেকে ৫৫ টি গাড়ি রিজার্ভ করা হয়েছে এবং চৌদ্দগ্রাম থেকে জামায়াত-শিবিরের ৫ হাজার লোকের সমাবেশ করার স্বীদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। সমগ্র উপজেলাতেই বিভিন্ন পোষ্টার, নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে ব্যানার তৈরির কাজ চলছে। তিনি বলেন, সারাদেশের মানুষ গনবিচ্ছিন্ন এই অবৈধ সরকারের পদত্যাগ ও অবিলম্বে নতুন নির্বাচন চায়। পাশাপাশি অন্যায়ভাবে গ্রেফতারকৃত জামায়াত নেতৃবৃন্দ’র মুক্তি চায়। এসব দাবিতে অনুষ্ঠিত সারাদেশে বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে গত কয়েক মাসের সকল সমাবেশেই সাধারন মানুষের ঢল নেমেছে। তারই ধারাবাহিকতায় কুমিল্লা জেলায়ও সাধারন মানুষের ঢল নামবে বলে আশা করে দলটি। তাদের মতে, বরাবরই কুমিল্লা জামায়াতের ঘাঁটি এবং আবারো ২৯ তারিখে প্রমানিত হবে কুমিল্লা জামায়াতের ঘাঁটি।
সমাবেশ নিয়ে ব্যাপক আগ্রহ সৃষ্টি হয়েছে চৌদ্দগ্রামের সাধারন মানুষের মাঝেও। গত কয়েকদিনে চৌদ্দগ্রাম বাজার সহ চৌদ্দগ্রামের বিভিন্ন এলাকায় চায়ের দোকান থেকে শুরু করে সকল জায়গায় ২৯ তারিখের সমাবেশ নিয়ে আলোচনা। কত লোক হবে? কেউ বলছে সারাদেশের চেয়ে কুমিল্লার সমাবেশেই সবচেয়ে লোক বেশি হবে। কেউ বলছে ঐ দিন কুমিল্লা শহর সকাল থেকেই অচল হয়ে যাাবে ইত্যাদি নানান কথা। তাদের মুখে খালেদা জিয়ার আগমন যেন মুক্তির আনন্দ। অনেকেই বলছেন হয়তো ২৯ নভেম্বরের সমাবেশ থেকেই দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সরকার পতনের একদফা আন্দোলনের ঘোষনা দিবেন।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply