মতলব উত্তরের পিএসসি’র মডেল টেষ্টের নামে হাতিয়ে নিল দু’লক্ষাধিক টাকা

ষ্টাফ রিপোর্টার :–

১৪ বছরে কখনও উপজেলায় প্রাথমিক সমাপনি পরীক্ষার মডেল টেষ্টের নামে বাণিজ্যের অভিযোগ উঠেনি। কিন্তু গত ২৬ আগষ্ট ২০১৪ ইং তারিখে শিক্ষা অফিসার সিরাজুল ইসলাম চলতি দায়িত্বে যোগদানের পর থেকে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। অনিয়ম করতে করতে যেন অনিয়মই নিয়মে পরিণত করছে এই শিক্ষা অফিসার। তিনি যোগদানের ২ মাসের মধ্যে ৫ম শ্রেণীর ২টি মডেল টেষ্ট পরীক্ষা নিয়েছে। গত ২৫ অক্টোবর থেকে শুরু হয়েছে ২য় মডেল টেষ্ট। এ পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করেছে প্রায় ৭ হাজার শিক্ষার্থী। প্রতি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ১৫ টাকা করে নিয়েছে সিরাজুল ইসলাম। এতে তার লক্ষাধিক টাকার বাণিজ্য হয়েছে। এর আগেও আরেকটি মডেল টেষ্ট নিয়েছিল ২ মাস আগে। এতেও তার লক্ষাধিক টাকার বাণিজ্য হয়েছে । দুই পরীক্ষায় ২ লক্ষাধিক টাকার বাণিজ্য হয়েছে তার। শুধু তাই নয় শিক্ষকদের বিভিন্ন স্বাক্ষরেও টাকা দিতে হয় তাকে। গত ২৯ অক্টোবর দুপুরে সাংবাদিকরা তার কার্যালয়ে গিয়ে তার বক্তব্য জানতে চাইলে তিনি জানান, মডেল টেষ্ট পরীক্ষায় ১২ টাকা করে ফি নিয়েছি। আর প্রতি মাসে শিক্ষকদের মাসিক সভা থাকে, সেই সভায় শিক্ষকদের বসার জন্য চেয়ার কিনতে নেওয়া হয়েছে আরো ৩ টাকা করে। তাছাড়া সেই টাকা আমার কাছে নেই, সেটা শিক্ষকদের কাছে আছে। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার সর্ম্পকে তিনি বলেন, উপজেলা শিক্ষা কমিটির সভাপতি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান। ওনাকে জানাইলে ভালো হয়, কিন্তু না জানাইলেও সমস্যা নেই। নির্বাহী অফিসারকে কি জানাবো, ওনি কি করবে। আমি আমার জেলা অফিসারের নির্দেশ পালন করেছি।
উল্লেখ্য, মডেল টেষ্ট পরীক্ষা ছাড়াই মতলব উত্তর উপজেলায় প্রাথমিক সমাপণী পরীক্ষায় ২০১১ইং সালে শতভাগ, ২০১২ইং সালে ৯৮%, ২০১৩ইং সালে ৯৭.৭৮% পাস করেছে।

Check Also

যে কোনো আন্দোলন-সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে : বিএনপি

চাঁদপুর প্রতিনিধি :– চাঁদপুর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সাধারণ সভায় বক্তারা বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম ...

Leave a Reply