মুরাদনগরে ভেঙ্গে পড়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থা : প্রতিটি সড়কই যেন মরনফাদ হয়ে আছে

মো: মোশারফ হোসেন মনির, মুরাদনগর :–

দীর্ঘ ১০ বছর ধরে সড়কের সংস্কার না হওয়ায় কুমিল্লার মুরাদনগরে দীর্ঘ ১০ বছর ধরে সড়কের সংস্কার না হওয়ায় ধরে সড়কের সংস্কার না হওয়ায় উপজেলার অধিকাংশ সড়কই যানবাহন চলাচলের অযোগ্য হয়ে ভেঙ্গে পড়েছে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা। উপজেলার প্রতিটি সড়কই এখন জনসাধারনের মরনফাদ হয়ে আছে। উপজেলায় গুরুত্বপূর্ণ সড়কসহ কমপক্ষে ৫টি আঞ্চলিক সড়ক ও এসব সড়কে নির্মিত বেইলী ব্রীজগুলো দীর্ঘদিন যাবত সংস্কার না হওয়ায় পথচারীসহ যাত্রীরা পড়েছেন চরম দুর্ভোগে।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, মুরাদনগর উপজেলার লাখ লাখ মানুষের যাতায়াতের প্রধান মাধ্যম সড়ক ও জনপদ বিভাগের অধীন গুরুত্বপূর্ণ ৫টি আঞ্চলিক সড়কসহ অভ্যন্তরীণ সড়কগুলোর এখন একেবারেই বেহাল দশা। কাঁচা, পাকা বা আধাপাকা রাস্তাগুলোর বিভিন্ন স্থানে পিচ ও ইট উঠে ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এসব গর্ত এখন কাঁদাজলে পরিপূর্ণ।কোনো কোনো জায়গায় রাস্তায় ১০/১৫ ফুট দীর্ঘ গর্ত হয়ে তাতে বৃষ্টির পানি জমে খালের মতোই মনে হয়। চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ায় এখন এসব রাস্তায় চলাচলকারী অধিকাংশ গাড়ি যান্ত্রিক সমস্যায় পড়ছে বা দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। এ সড়কের বেহাল স্থানগুলোর গর্তে যাত্রী ও পন্যবাহী গাড়ি আটকে জনদুর্ভোগের সৃষ্টি করছে। অনেক সড়ক দিয়ে হেঁটে যাওয়াও দুরূহ হয়ে পড়েছে। ফলে এ উপজেলার জনসাধারনের চরম ভোগান্তি হচ্ছে। গুরুত্বপূর্ণ এসব সড়ক গুলোর মধ্যে সওজের মুরাদনগর-ঢাকা সড়কের ২৫ কিলোমিটার, মুরাদনগর-রামচন্দ্রপুর ১০ কি.মি, কোম্পানীগঞ্জ-নবীনগর ১৭ কি.মি, মুরাদনগর-কোম্পানীগঞ্জ-হোমনা সড়কের ১২ কিলোমিটার এবং নবীপুর-শ্রীকাইল ১১ কি.মি সড়ক সড়ক একেবারেই চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এসব সড়কের বেইলী ব্রীজগুলোও যানবাহন চলাচলের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। উপজেলার সর্বমোট ব্রীজগুলোর মধ্যে ২০ টি বেইলী ব্রীজ যানবাহন ও জনসাধারনের মরনফাদ হয়ে দাড়িয়ে আছে। যার পরিনতি গত মঙ্গলবার সিমেন্টবাহী ১০ চাকার একটি ট্রাক ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলা সদরে যাওয়ার পথে মেটংঘর খালের ওপর বেইলি ব্রিজ ভেঙ্গে ট্রাকটি পানিতে পড়ে যায়। যার ফলশ্রুতিতে গত দশদিন ধরে কুমিল্লা-নবীনগর সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। অন্যদিকে মুরাদনগর-ঢাকা সড়কের একাংশ ভেঙ্গে ক্রমে গোমতী নদীতে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। এছাড়া প্রায় অর্ধশত বছর আগে মুরাদনগর-ঢাকা সড়কের থানা সংলগ্ন গোমতীর উপর নির্মিত বেইলী ব্রীজ ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় এসব ব্রীজ দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন অসংখ্য যাত্রীবাহী বাস ও মালবাহী ট্রাক চলাচল করছে। এ ব্রিজটির পাশে সড়ক ও জনপদ বিভাগ ব্রিজটি ঝুঁকিপূর্ণ সাইনবোর্ড লিখেই তাদের দায় এড়াতে চাচ্ছেন। এ ছাড়াও কোম্পানীগঞ্জ-নবীনগর সড়কের মেটংঘর এলাকার ৩টি, দৌলতপুর, পীরকাশিমপুরসহ বিভিন্ন স্থানের বেইলী ব্রীজ ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় এসব ব্রীজ দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিনই যাত্রীবাহী বাস ও মালবাহী ট্রাক চলাচল করছে।
সড়ক ও জনপদ বিভাগের (সওজ) কুমিল্লা অঞ্চলের নির্বাহী প্রকৌশলী সাইফ উদ্দিন জানান, এ উপজেলায় ২০টি বেইলী ব্রীজের বেশিরভাগই ঝুঁকিপূর্ণ। সড়ক ও ঝুঁকিপূর্ণ ব্রীজ সংস্কারের কার্যক্রম অচিরেই গ্রহণ করা হবে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply