ঘোড়ার গাড়িতে যাবেন রেলমন্ত্রী, বউ আনবেন পালকিতে করে

কুমিল্লাওয়েব ডেস্ক:–

এ মাসের শেষ দিনেই রেলমন্ত্রীর অবিবাহিত জীবনের অবসান হচ্ছে। তার গায়ে হলুদ ও বিয়ের দিন নির্ধারিত হয়েছে ৩১ অক্টোবর। আর বউভাত অনুষ্ঠিত হবে ১৪ নভেম্বর। ইতিমধ্যে বউভাতের কার্ড বিলানো শুরু করেছে মন্ত্রীর পরিবার। বিয়ের কার্ডে বউভাতের তারিখ উল্লেখ করা হলেও বিয়ের তারিখ জানানো হয়নি। মন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানিয়েছেন, চলতি মাসের শেষ দিনে গায়ে হলুদ ও বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করার তারিখ নির্ধারিত হয়েছে।
রেলমন্ত্রীর তিন ভাই মো. আবদুর রশিদ, মো. আব্দুল মতিন এবং এবিএম আবদুল লতিফের শুভেচ্ছায় ছাপানো বউভাতের কার্ডে অতিথিদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে জাতীয় সংসদ ভবন চত্বরের ২ নম্বর এলডি হলে বউভাত অনুষ্ঠানের স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। সন্ধ্যা ৭টা থেকে রেলমন্ত্রী ও তার স্ত্রী হনুফা আক্তার রিক্তা অতিথিদের অভ্যর্থনা জানাবেন।
এ উপলক্ষে মঙ্গলবারই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদসহ সিনিয়র রাজনীতিকদের কাছে দাওয়াতপত্র পৌঁছানো হয়েছে। বাদ যাবেন না সংসদের সাড়ে তিনশ এমপিও। মঙ্গলবার তার এপিএস সংসদের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে বিয়ের আমন্ত্রণপত্র বিলি শুরু করলেও তা শেষ করতে পারেননি। সংসদের প্রায় ১০০০ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে দাওয়াত দেবেন রেলমন্ত্রী। এছাড়া দাওয়াত পাবে তার মন্ত্রণালয়ের কর্মকতা-কর্মচারীরা।
বিয়ের কার্ড অনুযায়ী কনে হনুফা আক্তার রিক্তার গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার মীরাখলা গ্রামে। রেলমন্ত্রীর হবু শ্বশুরের নাম মরহুম হাসিব উল্লা মুন্সী। মন্ত্রী মুজিবুল হক বলেছেন, বিয়ে দেরিতে হলেও না হওয়ার চাইতে ভালো। এজন্য আপনাদের সবার দোয়া চাই।
জানা যায়, পরিবারের সবার ছোট রেলমন্ত্রী তার বিয়ের অনুষ্ঠানকে ত্রুটিমুক্ত করতে নানা ব্যবস্থা নিয়েছেন। বিয়ের দিন তিনি ঘোড়ার গাড়িতে চড়ে পাত্রীর বাড়ি যাবেন। আর বউকে নিয়ে আসবেন পালকিতে করে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply