গরুবাহী ট্রাক ও অতিরিক্ত গাড়ীর চাপে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার অংশে অসহনীয় যানজট : যাত্রীদের চরম ভোগান্তি

মো.জাকির হোসেন/ আলমগীর হোসেন :–

আসন্ন ঈদুল আযহার উপলক্ষে এক প্রান্তের গরু অন্য প্রান্তে আসা নেওয়া ফলে গরুবাহী ট্রাক ও শারদীয় দুর্গাদেবীর ষষ্ঠী পূজা এবং পবিত্র ঈদে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ঘরমুখি মানুষের যাতায়াতের চাপ বৃদ্ধি ও মহাসড়কের খানাখন্দের কারনে মঙ্গলবার সকাল থেকে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার অংশে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। এসময় চান্দিনা থেকে পদুয়ার বাজার পর্যন্ত ৩০ কিঃ মিঃ রাস্তায় যানজটের সৃষ্টি হয়।
হাইওয়ে পুলিশ জানায়, মহাসড়কে গরুবাহী ট্রাক ও অতিরিক্ত যানবাহনের চাপ বেড়ে যায়। তাছাড়া, আসন্ন ঈদুল আযহা ও শারদীয় দূর্গোৎসবকে কেন্দ্র করে ঘরমুখো মানুষের বাড়ী ফেরার গাড়ীর চাপ বৃদ্ধির ফলে গতকাল মঙ্গলবার ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার অংশের প্রায় ৩০ কিঃ মিঃ দিনভর লেগে ছিল। এদিকে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের ফোর লেন সম্প্রসারণের কাজ এবং কুমিল্লার অংশের বিভিন্ন বাজারে মালামাল উঠা-নামানোর কারণে ভোর থেকেই যানবাহনের গতি ধীর হয়ে আসায় সকাল ৭ টা থেকে সড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে সেটা চান্দিনা থেকে পদুয়ার বাজার পর্যন্ত প্রায় ৩০ কিলোমিটার দীর্ঘ হয়। স্থানীয় একাধিক সুত্র জানায়, নিমসার এলাকায় দেশের অন্যতম বৃহৎ কাচাঁ বাজারের অবস্থান। সড়ক ও জনপথ বিভাগ থেকে মহাসড়কের উপর মালামাল উঠা-নামার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও নিমসার এলাকায় সেটা মানা হয় না। প্রতিদিন ভোর থেকে দুপুর পর্যন্ত এইখানে রাস্তার উপর ভারী যানবাহন রেখে মালামাল উঠা-নামানোর কারণে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে । এক সময় তা দীর্ঘ হয়। এতে যাত্রী সাধারনের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়।
এব্যাপারে ময়নামতি হাইওয়ে থানার এসআই ওমর জানান, হরতালের কারনে মহাসড়কে গাড়ীর চাপ বৃদ্ধি পেয়েছে। যার ফলে গাড়ির গতি কম থাকায় কিছুটা যানজটের সৃষ্টি হয়েছে । rod4

অপরদিকে আমাদের দাউদকান্দি প্রতিনিধির পাঠানো সংবাদ

দেশের পূর্বাঞ্চলের সবচেয়ে ব্যস্ত ও গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ফের ৫০ কিলোমিটার সড়কজুরে তীব্্র যানজট সৃষ্টি হয়েছে। দাউদকান্দির গোমতী সেতুর পশ্চিম পাশে গজারিয়া এলাকা থেকে কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট পর্যন্ত প্রায় ৫০ কিলোমিটার সড়কজুরে হাজার হাজার যাত্রী ও পণ্যবাহী যানবাহন যানজটে আটকা পড়ে। আজ মঙ্গলবার ভোর রাত থেকে শুরু হয়ে বিকাল পর্যন্ত মহাসড়কে যানজট তীব্্র আকার ধারন করে। যানজটের কবলে পড়ে যাত্রীদেরকে পোহাতে হয় সিমাহীন দুর্ভোগ। বিশেষ করে যাত্রীরা ছোট শিশু, ভারী মালামাল, ব্যাগ ও এ্যাম্বুলেন্সে রোগীদেরকে নিয়ে পড়েন চরম বিপাকে। নাইট কোচের দূরগামী যানবাহনের যাত্রীদেরও পোহাতে হয়েছে চরম দুভোর্গ। যানজটের কারনে যাত্রীরা সঠিক সময়ে পৌছতে পারেনি তাদের গন্তব্যস্থানে। যাত্রীদের ১ ঘন্টার পথ যেতে সময় লেগেছে ৩/৪ ঘন্টার ও বেশী। রাজধানী ঢাকার সঙ্গে বানিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রাম ও প্রধান সমুদ্্র বন্দরের সঙ্গে যোগাযোগের এই সড়কটি একমাত্র মাধ্যম হওয়ায় প্রতিদিন হাজার হাজার যাত্রীবাহী ও মালবাহী যানবাহন চলাচল করে মহাসড়কটিকে ব্যস্ত করে তুলেছে। দেশের জাতীয় মহাসড়কের মধ্যে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অন্যতম ব্যস্ত ব্যানিজ্যিক মহাসড়ক হওয়ায় পরিবহন সেক্টরে এর গুরুত্ব সর্বাধিক। অথচ এ মহাসড়কে দীর্ঘ যানজটের কবলে পড়ে যাত্রীদের পোহাতে হয় চরম দুর্ভোগ এর সাথে সাথে অর্থনৈতিক দিক দিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে দেশ। বাংলাদেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যস্ত এই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কটি দ্্রুত চার লেনে উন্নত করতে সরকারের সু-দৃষ্টি দেওয়ার প্রয়োজন। এতে মহাসড়কে ভোগান্তি ও দীর্ঘ যানজট অনেকটাই কমবে বলে যাত্রী ও চালকরা আশা প্রকাশ করেন। এদিকে যাত্রীদের পাশাপাশি ট্্রাক বোঝাই কোরবানীর পশু নিয়ে যানজটে আটকা পড়ে চরম ভোগান্তীর শিকার হয় ব্যবসায়ীরা। গরু ব্যবসায়ীরা জানান, দীর্ঘ যানজট আর প্রচন্ড রৌদ্্ের বহু গরু অসুস্থ হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে চরম বিপাকে পড়তে হয় গরুর খাবার পানি নিয়ে। গরু ব্যবসায়ী আলী আকবর জানান, একটানা আড়াই ঘন্টা গৌরীপুর যানজটে আটকা পড়ে আছি। অথচ এতক্ষনে আমার গরু নিয়ে ফেনী থাকার কথা ছিল। সঠিক সময়ে হাটে গরু বিক্রি না করতে পারলে অনেক ক্ষতি হয়ে যাবে। এদিকে যানজট নিরশনে হাইওয়ে পুলিশের পাশাপাশি থানা পুলিশকে আ-প্রাণ চেষ্ঠা চালাতে দেখা যায়। দুপুরে দিকে দাউদকান্দির গৌরীপুর, পেন্নাই, আমিরাদ ও হরিপুর এলাকায় যানজট নিরশনে সেনাবাহিনীর সদস্যদের কাজ করতে দেখা যায়। মহাসড়কের দাউদকান্দির গৌরীপুর পেন্নাই, আমিরাবাদ ও হরিপুর-জিংলাতলী এলাকায় যানজটের তীব্্রতা বেশী দেখা যায়। দাউদকান্দি হাইওয়ে থানার ওসি মোঃ মিজানুর রহমান জানান, ভোর রাতে মহাসড়কের দাউদকান্দির দৌলতপুর এলাকায় একটি কাভার্ডভ্যান রাস্তার উপর পড়ে যানজটের সূত্রপাত ঘটে। তবে মাত্রাতিরিক্ত যানবাহনের চাপ, ওভারটেকিং ও এলোপাতাড়ি ভাবে গাড়ি চালানোর কারনে সৃষ্টি হয়েছে এ যানজট। সড়কজুরে মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য। যানজট নিরশনে তারা আ-প্রাণ চেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply