দেবিদ্বারে যথাযোগ্য মর্যাদায় ‘জাতীয় কণ্যা শিশু দিবস’

এবিএম আতিকুর রহমান বাশার :–

“শিক্ষা- পুষ্টি নিশ্চিত কর, শিশু বিয়ে বন্ধ কর” এ প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে দেবিদ্বারে যথাযোগ্য মর্যাদায় ‘জাতীয় কণ্যা শিশু দিবস’ পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে দেবিদ্বার উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ হোসেন’র সভাপতিত্বে এবং বন্ধু মহিলা সবুজ সংস্থা’র প্রধান নির্বাহী পরিচালক মোঃ সফিকুল ইসলাম’র সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন, সাংবাদিক এবিএম আতকুর রহমান বাশার, উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা মোঃ কবির আহমেদ, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সালমা ইয়াছমিন, জুলেখা আক্তার শান্তা। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) দাউদ হোসেন চৌধূরী, উপজেলা বিআরডিবি কর্মকর্তা মোঃ আবুল হাসেম মোল্লা, উপজেলা মাধ্যমিক সহকারী কর্মকর্তা মোঃ শাহ আলম, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা সহকারী কর্মকর্তা আয়শা আক্তার, সাংবাদিক মমিনুর রহমান বুলবুল প্রমূখ।
আলোচকগন কণ্যা শিশুদের অন্ধকার যুগের অবস্থা এবং বর্তমান অবস্থার তুলনা করে কণ্যা শিশুদের শিক্ষা- পুষ্টি এবং বাল্য বিয়ে প্রতিরোধে সর্বাত্মক সচেষ্ট থাকার আহবান জানান। নারী-পুরুষের সম-অধিকার প্রতিষ্ঠায় বৈষম্য পরিহারেরও আহবান জানান, কারন নারীদের ধর্মীয় গোড়ামির শৃংখলে আবদ্ধ রেখে অগ্রগতি সম্ভব নয়। বক্তারা সকল অনিয়মকে নিয়মের আওতায় আনতে সামাজিক সচেনতার উপর গুরুত্ব দিয়ে বলেন, আইন প্রণয়নের মাধ্যমেই ইভটিজিং, বাল্য বিয়ে, যৌতুক, মাদকসহ অনৈতিক ও অসামাজিক কর্মকান্ড প্রতিরোধ সম্ভব নয়, তার যথার্থ প্রয়োগ এবং এরজন্য প্রয়োজন সামাজিক সচেতনতা নামক বিপ্লবের।
বাল্য বিয়ের ক্ষেত্রে ছেলে- মেয়েদের ২বছর কমিয়ে আনার প্রস্তাবকে অগ্রহনযোগ্য দাবী করে আলোচকগণ বলেন, যে সমস্যার কারন দেখিয়ে ২বছর কমিয়ে আনার প্রস্তাব করা হয়েছে, তা কোন সমস্যা নয়, এটা রাষ্ট্র, সমাজ এবং পরিবারের অসতর্কতামূলক ব্যার্থতা। বিয়ের বয়স কমালে মাতৃমৃত্যু ও শিশু মৃত্যুর হার বাড়বে, জীবনী শক্তি হারিয়ে ফেলবে, সংসার পরিচালনায় অপরিপক্ক স্বামী- স্ত্রীর দ্বন্দ্ব, বিবাহ বিচ্ছেদ, পারিবারিক কলহ থেকে আইন-আদালতে গড়ানোসহ নারী নির্যাতন মামলা হার বৃদ্ধি পাবে। ১৮বছরের একটি শিশুছেলে ১৬বছরের একটি মেয়ের দায়িত্ব নেয়াসহ পরিবারের হাল ধরা সম্ভব নয়।
আলোচনা শেষে ৫০জন কণ্যা শিশু’র পরিবারকে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে ঋণের চেক বিতরণ কারা হয়। চেক বিতরণ করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ হোসেন।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply