বঙ্গবন্ধুর জম্ম না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন হতো না—-মৎস্য ও প্রানী সম্পদ মন্ত্রী

আকতার হোসেন ভুইয়া,নাসিরনগর :–

বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য ও প্রানী সম্পদ মন্ত্রী এডভোকেট মোঃ ছায়েদুল হক এমপি বলেছেন এই দেশের মানুষের জন্য সবচেয়ে বেশী ত্যাগ স্বীকার করেছেন বঙ্গবন্ধু। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুরের জম্ম না হলে বাংলাদেশ স্বাধীণ হতো না। তাঁর নেতৃত্বেই বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। তিনি ২৬ মার্চ স্বাধীনতা ঘোষনা করেন। অথচ জাতীয় শোক দিবসে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া মিথ্যা জম্ম দিন পালন করেন। বিএনপি আদর্শই হল ইতিহাস বিকৃত করা। পরিশেষে তিনি প্রধানমন্ত্রী বন্ধবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বাস্তবায়নে সকলকে একযোগে কাজ করার আহবান জানান। আজ শুক্রবার দুপুরে নাসিরনগর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৩৯ তম শাহাদাত বাষির্কী পালন উপলক্ষে জাতীয় শোক দিবসের এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা চৌধুরী মোয়াজ্জম আহমদের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক এটিএম মনিরুজ্জামান সরকার, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান লেঃ অবঃ গোলাম নূর, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রদীপ কুমার রায়, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দা হামিদা লতিফ, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ডাঃ রাফি উদ্দিন আহমেদ, সদর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ রফিজ মিয়া,গুনিয়াউক ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম সামদানী,সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান,নাসিরনগর সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি হাজ্বী আবদুল গাফ্ফার। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ হোসেন, যুবলী নেতা আমিনুল ইসলাম বেলায়েত, বসির আল হেলাল,ছাত্রলীগ নেতা আসাদুজ্জামান চৌধুরী, নাছির উদ্দিন রানা প্রমূখ। এছাড়াও আওয়ামীলীগ ও তার অঙ্গসংগঠনসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পৃথক কর্মসূচী পালন করে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৩৯ তম শাহাদাত বাষির্কী পালন উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার সকালে সরকারি ,বেসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্টানে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা,শোকর‌্যালী,বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ,স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা,মিলাদ মাহফিল ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। সকালে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলা চেয়ারম্যান এটিএম মনিরুজ্জামান সরকার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা চৌধুরী মোয়াজ্জম আহমদের নেতৃত্বে সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ,বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্টানের শিক্ষক-শিক্ষিকা,শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে এক বর্ণাঢ্য শোক র‌্যালী উপজেলা সদরে বের করা হয়। বাদ জুমা জাতির জনক ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল এবং মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হয়।

Check Also

আশুগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামির মরদেহ উদ্ধার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :– ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. হারুন মিয়া (৪৫) নামে দুই বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির ...

Leave a Reply