পুলিশের মামলায় কুমিল্লার মুরাদনগর বিএনপির ৮১ নেতা-কর্মী কারাগারে

মো: মোশাররফ হোসেন মনির, মুরাদনগর:–

সংঘর্ষ, বিষ্ফোরকসহ পুলিশের দায়ের করা চার মামলায় জামিন নিতে গিয়ে কারাগারে যেতে হয়েছে কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলা বিএনপির ৮১জন নেতা-কর্মী ও সমর্থককে। মঙ্গলবার সকালে কুমিল্লার ৮নং আমলী আদালতে ওইসব নেতা-কর্মী, সমর্থকরা হাজির হয়ে জামিনের আবেদন জানালে ওই আদালতের জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট বেগম রাজিয়া সুলতানা একটি জামিন মঞ্জুর করে অপর তিনটি মামলায় জামিন না মঞ্জুর করে তাদের কুমিল্লা কেন্দ্রিয় কারাগারের প্রেরণের নির্দেশ দেন। জামিন না মঞ্জুর নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের মধ্যে ষাট থেকে সত্তরোর্ধ ব্যক্তি রয়েছেন। যাদের মধ্যে কেউ শিক্ষকতা পেশায় জড়িত, কেউ শিক্ষকতা পেশা থেকে অবসরে এসেছেন।
জানা যায়, গত বছরের ১৩ নভেম্বর দেশব্যাপি ১৮দলীয় জোটের কর্মসূচির অংশ হিসেবে মুরাদনগর উপজেলা বিএনপির ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা হরতাল পালন শেষে একটি মিছিল বের করে। মিছিলটি দলীয় কার্যালয়ের সামনে এগুতেই স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও মুরাদনগর থানা পুলিশের একটি টিম যৌথভাবে বিএনপির মিছিলে হামলা চালায়। একপর্যায়ে এ হামলা ত্রিমুখি সংঘর্ষে রূপ নেয়। এ ঘটনায় মুরাদনগর থানায় তিনটি পৃথক মামলা দায়ের করা হয়। মামলায় ২০৬ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৫ হাজারের বেশী আসামী করা হয়। ঘটনার পর থেকে পুলিশ প্রতিটি ঘরে ঘরে হানা দিয়ে পুরো এলাকায় চরম আতঙ্ক ছড়ায়। রাত হলেই পুলিশ ঘরে ঘরে হানা দেয়। এলাকার পুরুষ লোকগুলো রাতে বাড়িতে না ঘুমিয়ে আত্মরক্ষায় অন্যত্র আত্মগোপন করে। ২০৬জনের মধ্যে বিএনপির নেতাকর্মী ছাড়াও শিক্ষকসহ সাধারণ মানুষ রয়েছে। যারা বিএনপিকে সমর্থন করে। এঘটনার আগে গত বছরের ২৮ মার্চ হরতাল চলাকালে মুরাদনগর উত্তর পাড়া মুরাদনগর-রামচন্দ্রপুর সড়কে গাড়ী ভাঙ্গচুর ও ককটেল বিস্ফোরন ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে ৩৯জনের নাম উল্লেখসহ ১৫জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে মুরাদনগর থানায় মামলা করে।
গতকাল মঙ্গলবার মুরাদনগর থানা পুলিশের দায়ের করা পৃথক চার মামলার আসামীদের মধ্যে ৮১জন নেতাকর্মী ও সমর্থক কুমিল্লার আদালতে জামিন চাইতে এসে কারাগারে গিয়েছেন। তারা হলেন, মুরাদনগর উপজেলা বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক মোল্লা মজিবুল হক, মো: কামাল উদ্দিন ভূইয়া, উপজেলা সেচ্ছাসেবক দল যুগ্ম-আহ্বায়ক ও পাহাড়পুর ইউপি চেয়ারম্যান তোফায়েল শিকদার, উপজেলা কৃষকদলের সভাপতি মো: নায়েব আলী, সহ- সভাপতি এমদাদুল আলম সিরাজ, বিএনপি নেতা বাকিছ চেয়ারম্যান, মাহমুদুল হাছান, ওমর আলী, মোহাম্মদ আলী, মাসুম মুন্সী, আলাউদ্দিন, মাসুদুর রহমানসহ আরো অনেকে। তারমধ্যে একটি বিদ্যালয়ের ৭০বছর বয়সী অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবু তাহের, ৭২বছর বয়সী বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি খোরশেদ আলম, ৬৫বছর বয়সী সামছুল হক, খোকন ও মনির নামে একজন শিক্ষক রয়েছেন। গতকাল দুপুরে জামিন নামঞ্জুর নেতা-কর্মীদের আদালত থেকে কুমিল্লা কেন্দ্রিয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply