দুই যুগ পর ফাইনালে আর্জেন্টিনা

ঢাকা :–

সার্জিও রোমেরোর কাঁধে চড়ে দুই যুগ পর স্বপ্নের ফাইনালে আর্জেন্টিনা। বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালের নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময়ে কোন দল গোল না পাওয়ায় ট্রাইব্রেকারে গড়াই হল্যান্ড-আর্জেন্টিনার মধ্যকার খেলা। আর এতেই ২-৪ গোলে হল্যান্ডকে হারিয়ে দুই যুগ পর ফাইনালের দড়জায় পা রাখলো ম্যারাডোনার দেশ। তবে আর্জেন্টিনার মূল নায়ক আজ রোমেরো। হল্যান্ডের দুই গোল ঠেকিয়ে দিয়ে দলকে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নের দোড় গোড়ায় পৌঁছে দিয়েছেন তিনি।
জার্মানির বিরুদ্ধে ব্রাজিলের বিপর্যয় থেকে শিক্ষা নিয়ে ২৪ বছর পর কাঙ্ক্ষিত ফাইনালের প্রত্যাশায় বুধবার দিবাগত রাত ২টায় সতর্ক সূচনা করে আর্জেন্টিনা ৷ ২৪ বছর পর কাঙ্ক্ষিত ফাইনালের প্রত্যাশায় হল্যান্ডের মুখোমুখি হয় আর্জেন্টিনা। আর গতবারের ফাইনালিস্ট এবার শিরোপা না পাওয়ার আক্ষেপ ঘোচাতে মরিয়া হয়ে শেষ পর্যন্ত প্রাণপণ লড়ে হল্যান্ড।
বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালের মূল সময়ে কোন দল গোল না পাওয়ায় অতিরিক্ত সময়ে গড়ায় হল্যান্ড-আর্জেন্টিনার মধ্যকার খেলা। কিন্তু অতিরিক্ত সময়েও গোলের দেখা পায়নি কোন দল। ফলে ভাগ্য নির্ধারিত হয় ট্রাইব্রেকারে।
অতিরিক্ত সময়ে গড়ানো ম্যাচের শুরু থেকেই পূর্বের মতোই মাঝমাঠে বল দখলে রেখে আক্রমণে যাওয়ার চেষ্টা করে দু’দল। ম্যাচের ৯৬ মিনিটে বল নিয়ে আর্জেন্টিনার ডিবক্সের ভেতরে ঢুকে বল বাড়ানো চেষ্টা করেন রোবেন। কিন্তু জাবালেতা কর্নারের বিনিময়ে সেটি প্রতিহত করেন। খেলার ৯৯ মিনিটে ডান পাশ দিয়ে ঢুকে বক্সের বাইরে থেকে বা পায়ে জোরালো শট করেন আরিয়েন রোবেন। কিন্তু সতর্ক থাকা আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক সামনের দিকে ঝুঁকে পড়ে বলটি দখলে নেন। ১১০ মনিটে ডাচ ডিফেন্ডার ডি ভ্রিজ ৩৫ গজ দূর থেকে গোল করার চেষ্টা করেন। তার জোরালো শট আর্জেন্টিনার গোলবারের ডান পাশ দিয়ে চলে যায়। ১১৬ মিনিটে ম্যাচে গোল করার সবচেয়ে সহজ সুযোগ নষ্ট করেন প্যালসিও। রদ্রিগেজের ক্রস ঠিক প্যালাসিওসের সামনে এসে পড়লেও খুব কাছ থেকেও হেড করেও গোলরক্ষককে পরাস্ত করতে পারেননি তিনি। এরপর পরই আবারও গোল করার সুযোগ আসে আর্জেন্টিনার পক্ষে। এবার ডাচদের বক্সের ভেতরে থেকে করা ম্যাক্সি রদ্রিগেজের দুর্বল শট সহজেই তালুবন্দী করেন গোলরক্ষ সিলেসেন।
খেলা শুরুর ২ মিনিটে বল নিয়ে আর্জেন্টাইন উইঙ্গার লাভেজ্জি ডাচদের ডিবক্সের ভেতরে ঢুকে পড়লেও হল্যান্ডের গোছানো রক্ষণভাগ তাকে প্রতিহত করেন। ম্যাচের ৬ মিনিটে ডাচ মিডফিল্ডার স্নেইডার আর্জেন্টিনার বিপদজনক সীমানায় বল বাড়িয়ে দিলে জাবালেতা প্রস্তুত থাকায় কোনো বিপদ ঘটেনি। ম্যাচের ১৫ মিনিটে ডিবক্সের বাইরে ফ্রিকিক পায় আর্জেন্টিনা। মেসির ফ্রিকিক ডাচ গোলরক্ষক দারুণ দক্ষতায় বলটি তালুবন্দী করেন। ২৪ মিনিটে কর্নার কিক থেকে শূন্যের বল ডিবক্সের ভেতরে পেয়েও হেড করে লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি লাভেজ্জি। এরপর ২৫ মিনিটে ডি জিংয়ের বাড়ানো বল আর্জেন্টিনার ডিবক্সের ভেতর পেয়ে যান ফন পার্সি কিন্তু সতর্ক এজেকুয়েল গ্যারে বলটি ক্লিয়ার করেন। ৩২ মিনিটে ফন পার্সিকে ফাকি দিয়ে পাঞ্চ করে বল ক্লিয়ার করেন আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক রোমেরো। ৩৬ মিনিটে লাভেজ্জি হল্যান্ডের বক্সের ভেতর বাড়িয়ে দেয়া বল হিগুয়েনের কাছে পৌঁছানোর আগেই ডাচ ডিফেন্ডার মাঝ মাঠে পাঠিয়ে দেন।
খেলার ৪৯ মিনিটে ডাচ ফরোয়ার্ড রোবেনকে অবৈধভাবে বাধা দেয়ায় ম্যাচের দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখেন মার্টিন ডেমিচেলিস। গোলহীন খেলার ৭৫ মিনিটে হিগুয়েনের শট সাইড নেটে লাগে। ৮৭ মিনিটে আর্জেন্টাইন আগুয়েরে ডিবক্সের ভেতরের বলটিতে শট করার আগেই ডাচ ডিফেন্ডার ভ্লার তা ক্লিয়ার করেন। ৯০ মিনিটে নির্ধারিত সময়ের শেষ বাঁশি বাজার আগে গোলবারে কাছ থেকে নেয়া রোবেনের শট মাশ্চেরানোর পায়ে লেগে বারের পাশ দিয়ে চলে যায়।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply