বাংলাদেশ নেভাল একাডেমীতে গ্রীষ্মকালীন রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি :–

চট্টগ্রামের পতেঙ্গাস্থ বাংলাদেশ নেভাল একাডেমীতে আজ সোমবার (২৩-০৬-২০১৪) ডাইরেক্ট এন্ট্রি অফিসার ২০১৪/এ এবং মিডশীপম্যান ২০১২/বি ব্যাচের নবীন কর্মকর্তাদের গ্রীষ্মকালীন রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। নৌবাহিনী প্রধান ভাইস এডমিরাল এম ফরিদ হাবিব, এনডিসি, পিএসসি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মনোজ্ঞ এ কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও সালাম গ্রহণ করেন। এর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ২০১৪/এ ব্যাচের ১৪ জন ডাইরেক্ট এন্ট্রি অফিসার এবং ২০১২/বি ব্যাচের ৩৯ জন মিডশীপম্যানসহ সর্বমোট ৫৩ জন নবীন কর্মকর্তা কমিশন লাভ করেন। এদের মধ্যে ০৭ জন প্যালেষ্টাইন মিডশীপম্যান রয়েছেন।
ডাইরেক্ট এন্ট্রি অফিসার ২০১৪/এ ব্যাচ হতে ইন্সট্রাক্টর এ্যাক্টিং সাব লেফটেন্যান্ট মোঃ ইমরান হোসেন, বিএন শ্রেষ্ঠ ফলাফল অর্জনকারী হিসেবে ‘নৌ প্রধান পদক’ লাভ করেন। অন্যদিকে ২০১২/বি ব্যাচের মিডশীপম্যান এ টি এম ওয়ালি মেহফুজ, বিএন সেরা চৌকস মিডশীপম্যান হওয়ার গৌরব অর্জন করে ‘সোর্ড অব অনার’ লাভ করেন। এছাড়া পেশাগত ও শিক্ষাগত বিষয়ে সর্বোচ্চ মান অর্জনকারী হিসেবে মিডশীপম্যান মোঃ জিনাত রায়হান, বিএন ‘ওসমানী স্বর্ণপদক’ এবং মিডশীপম্যান জামিউল হুদা জেসন, বিএন ‘নৌ প্রধান স্বর্ণপদক’ লাভ করেন।
কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠান শেষে সদ্য কমিশনপ্রাপ্ত নবীন কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে নৌবাহিনী প্রধান তার ভাষণে তরুণ প্রজ›েমর কর্মকর্তাদের দেশ রক্ষার মহান কর্তব্যে আত্মনিয়োগ করে দেশ সেবার কাজে এগিয়ে আসার আহবান জানান। তিনি বলেন, স¤প্রতি বঙ্গোপসাগরে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যকার দীর্ঘদিনের অমীমাংসিত সমুদ্রসীমা চুড়ান্ত—ভাবে নির্ধারিত হয়েছে। তাৎপর্যপূর্ণ এ সমুদ্র বিজয়ের মাধ্যমে অর্জিত বিশাল জলরাশির সম্পদ রক্ষা এবং সার্বিক নিরাপত্তার দায়িত্ব বাংলাদেশ নৌবাহিনীর। সেই মহান দায়িত্ব পালনে নৌবাহিনী সদা প্রস্তুত। তিনি আরও বলেন, সরকারের সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা অনুযায়ী সমুদ্র এলাকার নিরাপত্তা নিশ্চিত করণে নৌবাহিনীতে ঘাঁটি সুবিধাসহ সাবমেরিন সংযোজন এখন শুধুমাত্র সময়ের ব্যাপার। নৌবাহিনীর আধুনিকায়ণে স¤প্রতি মিসাইল স¤¦লিত দুটি লার্জ পেট্রোল ক্রাফট, দুটি ফ্রিগেট এবং একটি কোস্টগার্ড কাটার কমিশন করা হয়েছে। এছাড়াও দুইটি হেলিকপ্টার এবং দুইটি আধুনিক মেরিটাইম পেট্রোল এয়ারক্রাফট নৌবহরে সংযোজিত হয়েছে। পাশাপাশি জাহাজ নির্মাণের ক্ষেত্রেও নতুন দিগন্ত উ›েমাচিত হয়েছে। খুলনা শিপইয়ার্ডে প্রথমবারের মতো পাঁচটি পেট্রোল ক্রাফট নির্মিত হয়েছে এবং দুইটি এলপিসি নির্মাণের কাজ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। অন্যদিকে আনন্দ শিপইয়ার্ডে একটি আধুনিক ফ্লিট ট্যাংকার এবং খুলনা শিপইয়ার্ড ও নারায়নগঞ্জ ডকইয়ার্ডে দুইটি এলসিইউ এবং দুইটি এলসিটি নির্মাণের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। বাংলাদেশ নৌবাহিনীর এই সকল জাহাজসমূহ জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ গ্রহণ ছাড়াও আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বিভিন্ন এক্সারসাইজ ও অপারেশন পরিচালনার মাধ্যমে দেশের ভাবমুর্তি উজ্জল করছে। ইতিমধ্যে নৌবাহিনীর প্রশিক্ষণ কার্যক্রম আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করার লক্ষ্যে নেভাল একাডেমীর আধুনিকায়নে বঙ্গবন্ধু কমপ্লেক্সের নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। এছাড়াও নবীন কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণের সময়কাল তিন বছরে উন্নীতকরণসহ বিএসসি অনার্স এবং বিবিএ ডিগ্রি প্রদানের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে যা আগামী ২০১৫ সালের জানুয়ারি থেকে কার্যকর করা হবে। সর্বোপরী তিনি নবীন কর্মকর্তাদের সশস্ত্র বাহিনীর একজন সদস্য হিসেবে শৃঙ্খলাবোধকে জীবনের সর্বোচ্চ পর্যায়ে স্থান দিয়ে বুদ্ধিমত্তা, জ্ঞান, প্রতিভা ও চৌকস নেতৃত্বের মাধ্যমে বিশাল জলসীমায় সার্বভৌমত্ব অক্ষুন্ন রাখার মাধ্যমে চোরাচালান ও সন্ত্রাস দমন, জাটকা নিধন প্রতিরোধসহ প্রাকৃতিক দূর্যোগ ও পুনর্বাসনে কাজ করে যাওয়ার নির্দেশনা প্রদান করেন।
গ্রীষ্মকালীন এ রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজে নৌ সদর দপ্তরের পিএসওগণ, চট্টগ্রাম নৌ অঞ্চলের আঞ্চলিক কমান্ডারগণ, চট্টগ্রাম অঞ্চলের সেনা ও বিমান বাহিনীর আঞ্চলিক অধিনায়কগণসহ উর্ধ¦তন সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তা, দেশী-বিদেশী কূটনীতিকবৃন্দ এবং শিক্ষা সমাপনী ব্যাচের ডাইরেক্ট এন্ট্রি অফিসার ও মিডশীপম্যানদের অভিভাবকবৃন্দ উপস্থিত থেকে মনোজ্ঞ এ কুচকাওয়াজ উপভোগ করেন।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply