মতলব উত্তরের গাজী তোফায়েল হোসেন চেয়ারম্যানের মৃত্যূর সংবাদে এলাকায় শোকের ছাঁয়া

শামসুজ্জামান ডলার :–

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার গাজী তোফায়েল হোসেন চেয়ারম্যানের মৃত্যূর সংবাদে এলাকায় শোকের ছাঁয়া নেমে আসে। সোমবার সকাল ৬.৪৫মিনিটে ঢাকার শমরিতা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যূবরন করেন (ইন্নানিল্লাহে . . . . রাজেউন)। মৃত্যূকালে তাঁর বয়স হয়েছিল (৫৮) বছর। তাঁর এই মৃত্যূর সংবাদে এলাকায় বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার মানুষদেও মাঝে শোকের ছাঁয়া নেমে আসে। গত বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে আমিরাবাদ বাজারের নিজ অফিসে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে দ্রুত তাঁকে ঢাকার শমরিতা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। তিনি ১৯৯২ সাল থেকে ২০১১ইং সালের ২৪ জুলাই পর্যন্ত উপজেলার সর্ববৃহৎ ফরাজীকান্দি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি দীর্ঘ্য অনেক বছর যাবৎ ফরাজীকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতির দায়িত্বেও রয়েছেন। তিনি বিভিন্ন সামাজিক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। ঢাকার হাসপাতালে মৃত্যূবরন করলে লাশ ঢাকায় হিমাগারে রাখা হলেও ফরাজীকান্দি ইউনিয়নের বিভিন্নস্তরের মানুষ তাঁর বাড়ীতে ছুটে এসে ভীড় জমায়। তখন তাঁর বাড়ীতে লাশ না থাকলেও আগত মানুষের মাঝে কান্নার রোল পড়ে।

তাঁর ২ছেলে ও ২মেয়ে। বড় মেয়ে ইটালি ও ছোট মেয়ে আমেরিকা এবং ছোটভাই অষ্ট্রেলিয়া থেকে আসার পর বৃহস্পতিবার নিজ গ্রামের বাড়ীতেই তাঁর মরদেহ দাফন করার কথা রয়েছে। বৃহস্পতিবার বাদ যোহন প্রথমে ফরাজীকান্দি কমপ্লেক্স মসজিদের সামনে, তার পর চরকালিয়া ঈদগাঁহ মাঠে এবং সবশেষে আমিরাবাদ বাজার ঈদগাঁহ মাঠে যানাযা অনুষ্ঠিত হবে।
গাজী তোফায়েল হোসেনের মৃত্যূতে মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মনজুর আহমদ মঞ্জু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাডঃ রুহুল আমীন, সাধারন সম্পাদক এমএ কুদ্দস,উপজেলা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি সামছুল হক চৌধুরী বাবুল, সাধারন সম্পাদক গোলাম কাদির মোল্লা, বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানগন, উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি- সাধারন সম্পাদকগন, ফরাজীকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার রেজাউল করিম, সাবেক সাধারন সম্পাদক হেলাল উদ্দিন সরকারসহ বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ শোক প্রকাশ করেন।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply