কুমিল্লায় আনসারদের বকেয়া বেতন পরিশোধ না করায় অসন্তোষ

মো: শাকিল মোল্লা, কুমিল্লা :–
সরকার বিরোধী নাশকতার ঘটনায় কুমিল্লায় রেললাইন খুলে ফেলায় ট্রেন দুর্ঘটনার পর রেলপথ মন্ত্রণালয় থেকে নিয়োগকৃত আনসারদের বকেয়া বেতন দীর্ঘ ৩ মাসেও পরিশোধ না করায় রেলপথ নিরাপত্তায় দায়িত্বপালন করা আনসারদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। এঅবস্থায় সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের দ্বারে দ্বারে ঘরেও বেতন-ভাতাদি পাচ্ছে না ওই আনসার সদস্যরা।
জানা যায়, দেশে বিগত ২০১৩ সালে সরকার বিরোধী আন্দোলন চলাকালে দেশের অন্যান্য স্থানের ন্যায় কুমিল্লার সদর রসুলপুর ও রাজাপুর রেলওয়ে ষ্টেশনের মাঝামাঝি স্থানে গত ৫ ডিসেম্বর দুবৃর্ত্তরা রেললাইনের কিছু অংশ কেটে ফেলা সহ লেলপথের ফিষ প্লেট খুলে ফেলে। এতে ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটে। এঅবস্থায় রেলপথ মন্ত্রণালয় থেকে রেলওয়ের নিরাপত্তার জন্য ৬ ডিসেম্বর থেকে কুমিল্লার বুড়িচং ও ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার কুমিল্লা অংশে ৪৮ জন আনসার সদস্যকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছিল। আনসার প্লাটুন কমান্ডার মোঃ সেলিম খান জানান, ৫ ডিসেম্বর বুড়িচং উপজেলা আনসার কমান্ডার এনায়েত তাদের বাহিনীর ৩ প্লাটুন সদস্যকে দৈনিক প্লাটুন কমান্ডার ৩’শ৫০ টাকা এবং সাধারন আনসার সদস্য ৩’শ ৩০ টাকা হারে বেতন নির্ধারন করে এই দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দেয়। তারা ৬ ডিসেম্বর থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৪ পর্যন্ত ৮৫ দিন এই দায়িত্ব পালন করেছিল। এসময় উপজেলা কমান্ডার এনায়েত, মফিজ ও সোলেমান তাদের বিভিন্ন সময় ৩ দফায় মোট ১৯ দিনের বেতন পরিশোধ করেছিল। সর্বশেষ ২৮ ফেব্রুয়ারী দায়িত্ব পালন শেষে আনসাররা তাদের বকেয়া বেতন পরিশোধের জন্য চাপ দিলে উক্ত এনায়েত,মফিজ ও সোলেমান বিভিন্ন তারিখ দিয়ে তাদের ঘুরাতে থাকে । সর্বশেষ কিছুদিন আগে উক্ত কমান্ডাররা ৪৮ জন আনসারকে তাদের বকেয়া বেতন পরিশোধের কথা বলে জনপ্রতি ১ হাজার টাকা করে হাতিয়ে নেয়। এঅবস্থায় তারা টাকার জন্য চাপ দিলে কমান্ডাররা তাদের নানা ভাবে ভয়ভীতি দেখায়। এঅবস্থায় আনসার সদস্যরা রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করলে তাদের বকেয়া ভাতাদি পরিশোধ করা হয়েছে বলে জানায়। এদিকে উপজেলা কমান্ডার এনায়েত সম্প্রতি বদলি হয়ে রাঙ্গামাটি চলে যাওয়ায় সাধারন আনসারদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।এঅবস্থায় গতকাল বুধবার বিকেলে ক্ষতিগ্রস্থ আনসার সদস্যরা বাকশিমুল বাজারে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। এব্যাপারে কমান্ডার এনায়েতের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি এব্যাপারে কিছুই জানিনা। অপরদিকে মফিজের মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। এব্যাপারে স্থানীয় বুড়িচং উপজেলার বাকশিমুল ইউনিয়নের ইউপি সদস্য মনির হোসেন জানান, সরকার বিরোধী আন্দোলন চলাকালে এই আনসার সদস্যরা তীব্র শীতে সারা রাত কর্তব্য পালন করলেও কি কারনে তাদের বেতন পরিশোধ হচ্ছে না তা বোধগম্য না।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply