সৌদি আরবে ফ্যামিলি ভিসা নিয়ে সংবাদ বিভ্রান্তির সুযোগে দালালচক্র তৎপর

সৌদি আরব প্রতিনিধি ::—
সৌদি আরবের জেদ্দা ভিত্তিক ‘আরব নিউজ’ পত্রিকায় সৌদি আরবে ফ্যামিলি ভিসা সংক্রান্ত একটি বিভ্রান্তিকর সংবাদের ওপর ভিত্তি করে বাংলায় বিভিন্ন নিউজ পোর্টালে মনগড়া ও ভিত্তিহীন সংবাদ পরিবেশিত হওয়ায় চরম বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছে সৌদি প্রবাসীদের মাঝে। প্রায় ৩ মিলিয়ন বাংলাদেশি অধ্যুষিত, পেট্রোলিয়াম সমৃদ্ধ এই দেশটিতে ফ্যামিলি ভিসার পুরনো আইন ন্যূনতম শিথিল করা না হলেও বাংলা সংবাদ মাধ্যমের বিভ্রান্তিকর তথ্যে ইতিমধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত হতে শুরু করেছেন নিরীহ প্রবাসীরা।
সৌদি আরব জুড়ে তৎপর হয়ে উঠেছে সংঘবদ্ধ দালাল চক্র। অর্থের বিনিময়ে বাংলাদেশ থেকে ফ্যামিলি এনে দেয়ার নতুন ঠকবাজির ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে দালালরা। বিভ্রান্তির শিকার প্রবাসীরা দলে দলে পাসপোর্ট অফিসে ভিড় করে ফিরে আসছেন খালি হাতে। বাংলা মিডিয়া কর্তৃক দায়িত্বহীন সংবাদ পরিবেশনে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন রাজধানী রিয়াদের বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ও সৌদি রাজ পরিবারের অন্যতম চিকিৎসক ড. আরিফুর রহমান। ৩৭ বছর ধরে সৌদি আরবে বসবাস করছেন তিনি।
৭ জুন শনিবার এই প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে ড. আরিফ বলেন, ‘‘সৌদি আরবে কর্মরত যে কোন বিদেশী নাগরিক কর্তৃক নিজ দেশ থেকে পরিবার নিয়ে আসা সংক্রান্ত আগেকার আইন পুরোপুরি বহাল আছে এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক আইনের ধারা-উপধারায় কোন যোগ বিয়োগও ঘটেনি। চলমান আইনে শুধুমাত্র ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, আর্কিটেক্ট, এডভাইজর, ম্যানেজার এরকম সুনির্দিষ্ট বিশেষ কিছু পেশার উচ্চ বেতনের বিদেশি নাগরিকরাই নিজ নিজ দেশ থেকে পরিবার পরিজন নিয়ে আসার সুযোগ পেয়ে থাকেন।’’

যে কোন বিভ্রান্তিকর সংবাদের পরিণতিতে দালালদের পাতা ফাঁদে পা না দেয়ার আহবান জানিয়ে ড. আরিফ আরো বলেন, ‘‘ভ্রমণ ভিসায় সৌদি আরবে এসে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ সংক্রান্ত যেসব কথা বলা হচ্ছে, তা আমাদের বাংলাদেশিদের শতকরা ৯৫ ভাগেরও বেশির ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয় মূলতঃ সেই বিশেষ বিশেষ পেশা ও উচ্চ বেতন সংক্রান্ত রেস্ট্রিকশনের কারণে।’’ উল্লেখ করা যেতে পারে, সৌদি আরবে কর্মরত শতকরা ৯৫ ভাগের বেশি বাংলাদেশি নাগরিকদের মাসিক বেতন ১ হাজার রিয়ালের নিচে, যা চলমান আইনে বাংলাদেশ থেকে পরিবার পরিজন নিয়ে আসার জন্য পর্যাপ্ত নয়।
বিভ্রান্তিকর সংবাদের সুযোগে দালাল চক্রের যে কোন প্রতারণা থেকে সবাইকে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার আহবান জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ড. আরিফ। উল্লেখ করা যেতে পারে, Expats can make family visit visas permanent শীর্ষক একটি সংবাদ গত ৫ জুন বৃহষ্পতিবার Arab News পত্রিকায় প্রকাশিত হয় যেখানে under special conditions কথাটি সুষ্পষ্টভাবে উল্লেখ থাকলেও সেই স্পেশাল কন্ডিশনগুলোর কথা বেমালুম বাদ দিয়ে বাংলা মাধ্যমে সৃষ্টি করা হয় চরম সংবাদ বিভ্রান্তি। ফলে সৌদি আরবস্থ বিভিন্ন পাসপোর্ট অফিসে হুমড়ি খেয়ে পড়ে শত-সহস্র মানুষ।
বিব্রতকর বিভ্রান্তি নিরসনে ‘আরব নিউজ’ অবশ্য পরদিনই অর্থাৎ ৬ জুন শুক্রবার Visit visa conversion not a rule শিরোনামে ফলো-আপ প্রতিবেদন প্রকাশ করতে বাধ্য হয়। তাতে গুরুত্বের সাথে উল্লেখ করা হয়, The conversion of a visit visa into a permanent residency permit for family members of expatriates is not a rule and can only be done in the rarest of rare cases only with the approval of the Interior Ministry. Arab News had accurately reported this situation on Thursday, but some people had misunderstood the report and rushed to passport offices.
‘আরব নিউজ’ পত্রিকার ফলো-আপে বলা হয়, সৌদি আরবে বসবারত বিদেশি নাগরিকদের পরিবার পরিজনরা ভিজিট ভিসায় এসে তা পারমানেন্ট রেসিডেন্স পারমিটে রূপান্তর করতে পারা সংক্রান্ত আদৌ কোন নতুন আইন হয়নি এবং একমাত্র সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তার নিজস্ব এখতিয়ারে খুবই বিশেষ কিছু ক্ষেত্রে তা করার ক্ষমতা সংরক্ষণ করে থাকে। বৃহষ্পতিবার প্রকাশিত আগেকার প্রতিবেদনে লোকজনের মাঝে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে নেয়া হয় শুক্রবারের ফলো-আপ প্রতিবেদনে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply