ঢাকা-চট্রগ্রামের মহাসড়কের দাউদকান্দিতে বাস-ট্রাকের সংঘর্ষে নিহত ৩॥ আহত ৩০

নিজস্ব প্রতিনিধি :–
শনিবার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দাউদকান্দি উপজেলার বারপাড়ায় বাস ও ট্রাকের ত্রিমুখী সংঘর্ষে ৩ জন নিহত এবং ৩০ জন আহত হয়েছে। দাউদকান্দি হাইওয়ে পুলিশ ও পত্যক্ষদূর্শীরা জানান, সকাল ১০টায় মহাসড়কের বারপাড়ায় ঢাকাগামী তিশা পরিবহনের যাত্রীবাহী বাস (ঢাকা মেট্রো-ব-১৪-৬৮৮৪) পেছন থেকে ঢাকাগামী অপর একটি মালবোঝাই ট্রাককে (ঢাকা মেট্রো-ড-১৪-১১১৭) সজোরে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায়। এসময় ট্রাকটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কুমিল্লাগামী একটি রোমান পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসকে ( ঢাকা মেট্রো-ব- ১৪-০৫৮৬) ধাক্কা দিলে বাসটি রাস্তার পাশে উল্টে যায়। এসময় ঘটনাস্থলে বাস চালক নিহত এবং ৩০ জন যাত্রী গুরুতর আহত হয়। স্থানীয় লোকজন, দাউদকান্দি ফায়ার সার্ভিস, হাইওয়ে পুলিশ ও মডেল থানা পুলিশ আহতের উদ্ধার করে গৌরীপুর হাসপাতালে প্রেরণ করে। গৌরীপুর হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নেওয়ার পর আরো ২ যাত্রী মারা যায়। গুরুতর আহত ১৬ জনকে চিকিৎসা দিয়ে ৮ জনকে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। বাকী আহতরা গৌরীপুর হাসপাতাল সহ বিভিন্ন ক্লিনিকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে। দুঘর্টনার পরপরই মহাসড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। দুঘর্টনার পর ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। নিহত এবং আহতরা প্রত্যেকে ছিল দিনমজুর। তারা রংপুর থেকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে কর্মস্থলে যাওয়ার পথে এ দুঘর্টনার শিকার হয়। এদিকে পালিয়ে যাওয়া তিশা বাসটি দাউদকান্দির শহীদনগর থেকে আটক করেছে পুলিশ। নিহতরা হলো, রোমান পরিবহন বাসের চালক বগুড়া জেলার গাবতলী উপজেলার পীরগঞ্জ গ্রামের ইসমত মিয়ার পুত্র জহিরুল ইসলাম (৪৫) ও বাসযাত্রী গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দপুর উপজেলার বুছাদহ গ্রামের আঃ সাত্তারের পুত্র দিনমজুর স্বপন মিয়া (১৮) এবং একই গ্রামের মোস্তাফিজুর রহমানের পুত্র ইকরামুল (৩৫)। আহত প্রত্যেকের বাড়ী রংপুর ও গাইবান্ধায়। দুঘর্টনা কবলিত গাড়ি ও লাশ দাউদকান্দি হাইওয়ে থানা পুলিশ হেফাজতে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply