কুমিল্লার ব্যবসায়ী অপহরনের ১৬ ঘন্টা পর ১ লাখ টাকা মুক্তিপন দিয়ে মুক্ত

নিজস্ব প্রতিনিধি :–
কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার কালিয়াজুরী বড় বাড়ীর ব্যবসায়ী মমিনুল ইসলাম (বুলু) কে অপহরণের ১৬ ঘন্টা পর ১ লাখ টাকা মুক্তিপন পেয়েছে ফিরত দিয়েছে একটি সংঘবদ্ধ অপহরণকারী চক্র। অপহরণের পর মুক্তিতপন দাবীতে মমিনুলের উপর চালায় অমানুষিক নির্যাতন। এ ঘটনায় কোতয়ালী মডেল থানায় মামলা হয়েছে।

মামলার অভিযোগে জানা যায়, কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার কালিয়াজুরী বড়বাড়ীর ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী মমিনুল ইসলাম (বুলু) কে শনিবার রাত ৮টায় অজ্ঞাতনামা একটি মোবাইল ফোনে জানান তার ভাগিনা সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত কুমিল্লা টাওয়ার হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। খবর পেয়ে মমিনুল টাওয়ার হাসপাতালে ছুটে যান। ওখানে থেকে অপহরণকারী চক্রের ১০/১২ জন মমিনুলকে ছুরি ধরে দৌলতপুর পাঁচ তলা ছাদের উপর নিয়ে যায়। ওখানে নিয়ে অমানুষিক নির্যাতন চালিয়ে প্রথমে দুই লাখ টাকা মুক্তিপন দাবী করে। মমিনুল এর ছোট ভাই রবিউল ইসলাম অপহরণকারীর দাবীকৃত মুক্তিপন হিসেবে বিকাশ নাম্বার (০১৮৫৫-৬২৬৩৭৭, ০১৮৫৭৩৩২৭৪৩) সহ পৃথক চারটি নাম্বারে ১ লাখ টাকা পাঠানোর পর রবিবার দুপর ১২ টার দিকে ছোটরা রাস্তার মাথায় চোখ বাধা অবস্থায় মমিনুলকে ফেলে যায়। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হসপিটালে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানায় রবিউল ইসলাম বাদী হয়ে একটি সাধারণ ডায়রি (নং- ৫৭, তারিখ: ১৮/৫/১৪ইং) দায়ের করেন। কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ তদন্ত শেষে অভিযোগটি মামলা হিসেবে নথিভূক্ত করেন।
এ বিষয় অপহৃত মমিনুল ইসলাম (বুলু) জানান, আমাকে মোবাইল ফোনে কুমিল্লা টাওয়ার হাসপাতালের সামনে ডেকে নেয় ১০/১২ জনের একটি চক্র। দু’দিক দিয়ে ছুরি ধরে আমাকে দৌলতপুরে একটি পাঁচতলা বাড়ীর উপর নিয়ে নির্যাতন করে। পরে আমার ভাই এর কাছে ২ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবী করে। আমার ছোট ভাই রবিউল ১ লাখ টাকা মুক্তিপন দিলে আমাকে ছোটরা রাস্তার মাথায় চোখ বেঁধে ফেলে যায়।
এ বিষয় রবিউল ইসলাম জানান, আমার ভাইকে অপহরণ করেছে খবর পেয়ে শনিবার রাতেই কোতয়ালী মডেল থানায় অভিযোগ নিয়ে গেলে পুলিশ আমার অভিযোগ রাখেনি। পরবর্তীতে রবিবার স্থানীয় কাউন্সিলর কাউছারা বেগম সুমী সহ গন্যমান্য ব্যক্তিদের সহযোগীতায় অভিযোগ নেয় পুলিশ।
এ বিষয়ে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিরল কাউছারা বেগম সুমী জানান, রবিবার সকালে ঘটনাটি শুনার পর আমি থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে বলে অভিযুগটি দায়ের করাই। আমরা অপহরণকারীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শস্তর দাবী জানাচ্ছি।
স্থানীয় সমাজ সেবক হাজী মুরাদ জানান, মমিনুল ইসলাম (বুলু) দীর্ঘদিন বিদেশে ছিলেন। সম্প্রতি সময় দেশে এসে সে ক্ষুদ্র ব্যবসার সাথে জড়িত। সে কোন রাজনীতিক দলের সাথে জড়িত না। এলাকায় মমিনুল ভাল মানুষ হিসেবে পরিচিত। তার সাথে যারা এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে। তাদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।
এ বিষয়ে কোতয়ালী মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সামসুজ্জামান জানান, মমিনুল ইসলাম (বুলু) নামে ব্যবসায়ী অপহরন ঘটনায় অভিযোগ পেয়েছি। সে উদ্ধার হয়েছে। পরবর্তীতে অভিযোগটি মামলা হিসেবে নথিভূক্ত করা হয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply