চৌদ্দগ্রামে ছেলেকে মারধরের বিচার চাইতে গিয়ে খুন হলেন বাবা : ৮ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা

চৌদ্দগ্রাম প্রতিনিধি :–
খেলার মাঠে প্রতিপক্ষ খেলোয়ারদের হাতে আহত ছেলের বিচার চাইতে গিয়ে খুন হয়েছেন আবদুল হালিম নামের এক ব্যক্তি। গত বুধবার কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের শুভপুর ইউনিয়নের কৈয়ারধারী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এঘটনায় নিহতের স্ত্রী সামছুন নাহার বেগম বাদি হয়ে ওই গ্রামের আটজনকে আসামী করে বুধবার রাতে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।
মামলা ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, কৈয়ারধারী গ্রামের জমিতে বুধবার বিকেল সাড়ে চারটায় ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। খেলায় একই গ্রামের আবদুল হালিমের ছেলে দ্বীন ইসলাম (১৯) ও নুর ইসলামের ছেলে পারভেজের (২০) মধ্যে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে পারভেজ ও তার ভাইরাসহ মিলে দ্বীন ইসলামকে বেদম মারধর করে। খবর পেয়ে আবদুল হালিম ছেলে দ্বীন ইসলামকে উদ্ধার করে স্থানীয় শালিশদারদের কাছে গিয়ে পারভেজের বিরুদ্ধে বিচার দাবি করে। এতে ক্ষীপ্ত হয়ে পারভেজ ও তার লোকজন পথিমধ্যে আবদুল হালিমকে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে। স্থানীয়রা আহত আবদুল হালিমকে উদ্ধার করে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে রাত ৯টায় তার মৃত্যু হয়। রাতে পুলিশ লাশটি উদ্ধার শেষে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এঘটনায় নিহতের স্ত্রী সামছুন নাহার বেগম বাদি হয়ে আটজনকে আসামী করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার আসামীরা হচ্ছেন- একই গ্রামের পারভেজ, রিপন, ফারুক, আকবর, রেজাউল হক, মোহাম্মদ আমিন, নুরুল আমিন ও ফিরোজা বেগম।
এব্যাপারে চৌদ্দগ্রাম থানার সেকেন্ড অফিসার সামছুদ্দিন মো. ইলিয়াছ জানান, ‘এঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে’।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply