রবি উইম্যান অব এক্সিলেন্স হলেন নাফিসা

ঢাকা:–
দেশের দ্রুত বর্ধনশীল মোবাইল ফোন অপারেটর রবি আজিয়াটা লিমিটেড আয়োজিত উইম্যান অব এক্সিলেন্স প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হয়েছেন নাফিসা বিনতে ইউসুফ। প্রথম ও দ্বিতীয় রানার আপ হয়েছেন যথাক্রমে সুফিয়া বেগম ও উম্মে আয়মান তাসনিম।
বুধবার রাতে রাজধানীর গুলশানের ইমানুয়েলস হলে এক বর্ণাঢ্য এক অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন প্রধান অতিথি কৃষি মন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী, মালয়েশিয়ার হাইকমিশনার এইচ.ই. মাদাম নরলিন ওথম্যান ও রবি’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও সুপুন বীরাসিংহে।
এ সময় রবি আজিয়াটা লিমিটেডের চিফ অপারেটিং অফিসার মাহতাবউদ্দিন আহমেদ ও চিফ হিউম্যান রিসোর্সেস অফিসার মতিউল ইসলাম নওশাদ উপস্থিত ছিলেন।
প্রতিযোগিতার প্রাথমিক পর্যায়ে কর্মদক্ষতা, মূল্যবোধ ও সমস্যা সমাধানের দক্ষতার ভিত্তিতে ৯ জন চূড়ান্ত প্রতিযোগী মনোনীত হয়েছিলেন। তাদের মধ্য থেকে এই তিন জনকে পুরস্কৃত করা হয়েছে।
নারী কর্মীদের সম্মাননা প্রদান এবং কোম্পানিতে বৈচিত্র্য আনা ও সামাজিক দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনের মাধ্যমে নারীর সম্ভাবনাকে কাজে লাগানোর উদ্দেশে “রবি উইম্যান অব এক্সিলেন্স” পদক্ষেপটি নেয়া হয়।
গ্রান্ড ফিনালের বিচারক হিসাবে ছিলেন অভিনেত্রী সারা যাকের, রূপচর্চা বিশষেজ্ঞ ফারজানা শাকিল, অভিনেত্রী  ত্রপা মজুমদার এবং রবি আজিয়াটা লিমিটেডের চিফ অপারেটিং অফিসার-সিওও মাহতাবউদ্দিন আহমেদ।
রাজস্বের দিক থেকে মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর মধ্যে বাংলাদেশে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে মালয়েশিয়ার আজিয়াটা গ্রুপ বারহাদের একটি প্রতিষ্ঠান রবি আজিয়াটা লিমিটেড। রবি প্রতিটি বাংলাদেশিদের আত্মশক্তি জাগিয়ে তুলতে এবং ডিজিটাল সমাজ প্রতিষ্ঠায় জাতিকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে চায়। রবি সবসময়ই বাংলাদেশি সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের ওপর আলোকপাত করে এবং বিশেষ করে নারী ও তরুণদের দিকে নজয় দেয়। তরুণরা হচ্ছে দেশের ভবিষ্যত আর আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে নারীরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।
রবির মূলনীতির একটি হচ্ছে মূল্যবোধ, নেতৃত্ব, দক্ষতা ও আপোষহীন সততা যা একজন নারীকে অনুসরণীয় ব্যক্তিত্বে পরিণত করে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply