আগামী ৫ বছর প্রকৃত সেবক হিসেবে কচুয়াবাসীর পাশে থাকব—-উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাড. হেলাল উদ্দীন

ওমর ফারুক, কচুয়া :–

চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলা পরিষদের নব-নির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক অ্যাড. হেলাল উদ্দীন মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলা কর্মরত সাংবাদিকদের নিয়ে নির্বাচন পরবর্তী ও আগামী দিনে কচুয়ার উন্নয়নে সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করার লক্ষ্যে সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করেন। উপজেলা পরিষদের নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন- গত ১৫ই মার্চ অনুষ্ঠিতব্য উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে কচুয়াবাসী দলমত নির্বিশেষে বিশেষ করে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ সহযোগী সংগঠন, সকল ইউপি চেয়ারম্যানদ্বয় ও ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপি’র প্রতি কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জানান। গত ২৭ এপ্রিল আনুষ্ঠিনিকভাবে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে প্রথম সভায় দায়িত্ব গ্রহণ করি।
নিয়মানুযায়ী দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে আগামী ৫ বছর ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবো। একজন সেবক হিসেবে কচুয়াবাসীর সেবা করবো। অভিজ্ঞতা থেকে দেখেছি অনেকেই জনপ্রতিনিধি হয়ে মানুষকে সেবা না দিয়ে শাসক হয়েছেন। ভিন্ন ক্ষেত্রে অর্থবিত্ত বলিয়ান হয়েছেন। আমি উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে আগামী ৫ বছর কোন আর্থিক অনিয়মের সাথে জড়িত হবো না এবং কোন ক্ষেত্রে আর্থিক উৎকোচ গ্রহণ করবো না। কেউ আমার নাম ভাঙ্গিয়ে চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজী, ভূমি দখল, মাদক ব্যবাসা, মামলা মোকদ্দমায় হয়রানির হুমকি সাধারণ মানুষকে জিন্মি করে হয়রানি করার সুযোগ দেবো না। যাতে আমার পরিষদের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর কেউ বলতে না পারে আমি সেবক নয় শাসক হয়েছি। আমি সরকারের একজন কর্মকর্তা কিংবা নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি হিসেবে যখন যে অবস্থায় আমার সাহায্যের প্রয়োজন হবে আমার আর্থিক সক্ষমতার মধ্যে থেকে অবশ্যই সহায়তা করার চেষ্টা করব। আমার পথ চলায় আমার প্রাণপ্রিয় সংগঠন আওয়ামী লীগসহ সকল সহযোগী সংগঠন আমার পাশে থেকে ভাল কাজের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখবেন। তিনি আরো বলেন- ব্যক্তিগতভাবে আমার আচরণে কিংবা ভূমিকায় কেউ বিপদগ্রস্ত কিংবা ক্ষতিগ্রস্ত হলে তাৎক্ষনিক আমার স্বরাণাপণ্য হতে দ্বিধা করবেন না। সাংবাদিকরা জাতির বিবেক উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন- বস্তু নিষ্ঠু সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে কচুয়াকে এগিয়ে নিতে আহ্বান জানান।
পরে উপস্থিত সকল সাংবাদিকদের ধন্যবাদ ও কচুয়াবাসীর সর্বাত্মক সহযোগীতা কামনা করে প্রায় ১ ঘন্টা ব্যাপী বক্তব্য শেষ করেণ। এ সময় সাচার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওসমান গনি মোল্লা, আওয়ামী লীগ নেতা আবু বকর মিয়াজী, জিকেএম আলমগীর মজুমদার, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মনির হোসেন প্রধান, ফুয়াদ হাসান, কাজী এনামুল হক শামীম, যুবলীগ নেতা আলমগীর পাটওয়ারী, সাজ্জাদ হোসেন, জহিরুল ইসলাম ও ছাত্রলীগ নেতা শফিকুর রহমান চৌধুরীসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply