মতলবে উত্তরে স্বর্ণালংকারের লোভে দাদিকে খুন : ঘাতক নাতি শ্বশুর বাড়ি থেকে আটক

শামসুজ্জামান ডলার :–

চাঁদপুরের মতলব উত্তরের এমএমকান্দি গ্রামে নাতির হাতে খুন হয়েছেন দাদী করকুলনেছা বেগম (৭৫)। রোববার গভীর রাতে এ খুনের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নাতী মোখলেছ প্রধান (২৬) কে আটক করেছে পুলিশ। নিহত করকুলনেছা মৃত রঙ্গু প্রধানের স্ত্রী। তিনি ৪ ছেলে ও ২ মেয়ে সন্তানের জননী। ঘাতক মোখলেছ তার বড় ছেলে আ: রশিদের বড় ছেলে ।
পরিবার সূত্রে জানা যায়, করকুলনেছা ছোট ছেলে রাশিয়া প্রবাসী। রোববার রাতে সে বাড়ি আসবে তাই পরিবারের সবাই তাকে গ্রহণ করতে ঢাকা শাহ্জালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে যায়। এ সময় বাড়িতে শুধু নাতি মোখলেছ ও দাদী করকুলনেছা ছিল। রাতের কোনো একসময় নাতী মোখলেছ স্বর্ণালংকারের লোভে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে বৃদ্ধা দাদিকে। তার লাশ গুম করার উদ্দেশ্যে নাতি লাশ নিয়ে ঘরের ৫০গজ দূরে গেলে ফজরের আযান দেয়। এসময় মোখলেছ লাশ বাড়ির কুদ্দুছ প্রধানের ঘরের সামনে ফেলে রেখে উপজেলার বড় ষাটনল সবুরাকান্দি গ্রামে শশুর বাড়ি চলে যায়। সকালে বাড়ির লোকজন করকুলনেছা লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। সাথে সাথে বাড়ির লোকজনসহ পুলিশ মোখলেছের শশুর বাড়ি গিয়ে শোকেসে থাকা মোবাইল, স্বর্ণালংকার উদ্বার করে ও ঘাতক নাতিকে আটক করে। উদ্বারকৃত স্বর্ণালংকারের মধ্যে রয়েছে- স্বর্ণের একজোড়া কানের ঝুমকা, গলার ব্যবহৃত পেঁচানো একটি চেইন, হাতের একজোড়া স্বর্ণের রুলী।
আটককৃত ঘাতক মোখলেছ জানান, এ খুন তিনি একা করেনি। তার সাথে আরো ৪জন রয়েছে। তবে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আবু হানিফ জানান, মামলার প্রক্রিয়া চলছে। তদন্তে প্রকৃত ঘটনা বের হয়ে আসবে।
মতলব উত্তর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সৈয়দ মাহবুবুর রহমান ও এসআই আবু হানিফ সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থলে পৌছে লাশের সুরতহাল তৈরি করে। ময়না তদন্তের জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply