নাসিরনগরে দুই গ্রামবাসীর সংঘষের্র ঘটনায় তিনটি মামলা ॥ গ্রেফতার আতংকে গ্রাম পুরুষশূন্য

আকতার হোসেন ভুইয়া,নাসিরনগর(ব্রাহ্মণবাড়িয়া ) :–
নাসিরনগর উপজেলার চৈয়ারকুড়ি বাজারে সিএনজি অটোরিক্সার ষ্ট্যান্ডের আধিপত্য বিস্তারের ঘটনা নিয়ে সংঘর্ষে তিন পুলিশ সদস্য আহত হওয়ার মামলাসহ তিন মামলায় নুরপুর,লাহাজুরা ও পুকুরপাড় পুরুষশূণ্য হয়ে পড়েছে। এরই মধ্যে পুলিশ ২০জনকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়,সকালে চৈয়ারকুড়ি বাজারে সিএনজি চালিত অটোরিক্সা স্ট্যান্ড নিয়ে পূর্ব বিরোধের জের ধরে জেঠা গ্রামের মো. সাজিদ মিয়া ও নূরপুর গ্রামের মো. এমরান মিয়ার কথা কাটাকাটি হয়। এ ঘটনার জের ধরে ২৩ এপ্রিল সকাল ৯টার উভয় গ্রামের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। নাসিরনগর থানা পুলিশসহ জেলা সদর থেকে দাঙ্গা পুলিশ ও র‌্যাব-১৪ এর ভৈরব ক্যাম্পের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে ৪০ রাউন্ড ফাকাঁগুলি ও ২ রাউন্ড টিয়ারসেল ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। ৩ ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষে ৩ পুলিশসহ উভয়পক্ষে অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়। সংঘর্ষ চলাকালে কয়েকটি বাড়িতে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে আগুনে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জেঠাগ্রামের আতিকুর রহমান খসরুর বাড়িতে হামলা চালিয়ে বাড়িঘর ভাংচুর,লুটপাট ও অগ্নিসংযোগে সাতটি ছাগল ও দু’টি গরু পুড়ে মারা যায়। এতে প্রায় ১০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়। আহত হয় এ এসআই মিজানুর রহমান (৩৫).কনষ্টেবল ডালিম সরকার (৪০) শিব্বির আহমেদ(২৫) । এঘটনায়  নাসিরনগর থানার এসআই মোঃ তোফাজ্জল হোসেন বাদি হয়ে ১৯ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্জাত ৪শ ৫০ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এদিকে জেঠাগ্রামের আতিকুর রহমান খসরু বাদি হয়ে ৩০ জনকে আসামী করে লুটপাট অগ্নিসংযোগের অভিযোগে আরেকটি মামলা দায়ের করেছেন। অন্যদিকে জেঠাগ্রামের মো. সাজিদ মিয়া বাদি হয়ে ২৬ জনকে আসামী করে দ্রুত বিচার আইনে আরও একটি মামলা দায়ের করেছে। মোট তিনটি মামলায় পর থেকে নুরপুর গ্রামসহ লাহাজুরা ও পুকুরপাড়ের  পুরুষরা গ্রেফতার আতংকে বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। মহিলারাও রয়েছেন আতংকে। এলাকার প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীর উপস্থিতি কমে গেছে উল্লেখযোগ্য হারে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে ২০ জনকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছেন। এসআই মোঃ তোফাজ্জল হোসেন জানান,ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Check Also

কুমিল্লায় তিন গৃহহীন নতুন ঘর পেল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ– কুমিল্লা সদর উপজেলায় গ্রামীণ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের গৃহহীন নুরজাহান বেগম, ...

Leave a Reply