প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের পরিদর্শন : হোমনায় হামলার শিকার হিন্দু পরিবারগুলোর মাঝে অনুদান প্রদান

নাজমুল করিম ফারুক :–
মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) সম্পর্কে ব্লগে কটুক্তি প্রকাশের গুজব রটিয়ে রবিবার কুমিল্লার হোমনায় হিন্দু সম্প্রদায়ের ভাঙচুর ও লুটপাটে ক্ষতিগ্রস্ত ৩১টি পরিবারের মাঝে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নগদ অর্থ, চাল ও ডেউটিন প্রদান করা হয়। ঘটনার পর থেকে প্রশাসন, স্থানীয় সংসদ সদস্য, বিভিন্ন দলের জনপ্রতিনিধিগণ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
সরেজমিনে বাগ সীতারামপুর গ্রামে গিয়ে জানা যায়, রবিবার উক্ত ঘটনার পর তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল পরির্দশন করেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ গোলামুর রহমান, হোমনার দায়িত্বপ্রাপ্ত ইউএনও সামিহা ফেরদৌসী ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. মো. আজিজুর রহমান মোল্লা  পরিদর্শনকালে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর মাঝে রাতের খাবারের জন্য নগদ ১ হাজার টাকা করে প্রদান করা হয়। সোমবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন, কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আঃ মতিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জাহাঙ্গীর আলম, মুরাদনগর সার্কেলের এএসপি মো. নজরুল ইসলাম, জেলা ত্রাণ ও পূর্ণবাসন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী জিন্নাত, তিতাসের ইউএনও সামিহা ফেরদৌসী, হোমনার নবাগত ইউএনও আহম্মেদ জামিল, মুরাদনগরের ইউএনও মো. আনিছুজ্জামান। এসময় প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রতিটি পরিবারের জন্য নগদ ৫ হাজার টাকা, ২০ কেজি চাল ও দুই বান্ডিল ডেউটিন প্রদান করা হয়। একই দিন বিকালে কুমিল্লা-২ (তিতাস-হোমনা) আসনের এমপি মো. আমির হোসেন ভূঁইয়া ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং ক্ষতিগ্রস্তদের পুর্নবাসনের জন্য সরকার ও জাতীয়পার্টির পক্ষ থেকে পর্যাপ্ত সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন। মঙ্গলবার বাগ সীতারামপুর গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো পরিদর্শনে যান, কুমিল্লা (উত্তর) জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুল আউয়াল সরকার, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক বাদল রায়, হোমনা উপজেলা আওয়ালীগের সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল মজিদ, তিতাস উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা শওকত আলী, সদস্য সচিব মহসীন ভূঁইয়া, তিতাসের বর্তমান উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাহিনুল ইসলাম সোহেল ও সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মুন্সি মজিবুর রহমান প্রমূখ। বাগ সীতারামপুর গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত স্যাম পদ দাস, হরি পদ গোস্মামী, সুমতি বালা, ঊষা রানী দাস, পরিমল চন্দ্র দাসসহ স্থানীয়রা জানান, প্রশাসন ও বিভিন্ন দলের নেতাকর্মীদের কাছ থেকে অনুদান প্রদান করা হয়েছে এবং ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো পুনর্বাসনের জন্য আশ্বাস দেন। উক্ত ঘটনায় ৫৫ জনের নাম উল্লেখ্য করে এবং অজ্ঞাতনামা দেড় সহস্রাধিক ব্যক্তিকে অভিযুক্ত করে বাগ সীতারামপুর গ্রামের ডা. হরিপদ দাস বাদী হয়ে হিন্দু পরিবারের ঘর-বাড়ি ও মন্দির ভাংচুরের ঘটনায় হোমনা থানায় মামলা হয়েছে। ঘটনার অভিযুক্ত উপজেলার বাগ সীতারামপুর গ্রামের চাঁন মোহন দাসের ছেলে উদ্ভব চন্দ্র দাস (২৫) ও অনিল চন্দ্র দাসের ছেলে চিনিবাস চন্দ্র দাস (৩০) সহ ১১ জনকে আটক করেছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

কুমিল্লার হোমনায় হামলায় শিকার হিন্দু সম্প্রদায়ের ক্ষতিগ্রস্ত রাধাকৃষ্ণ মন্দির পরির্দশন করছেন স্থানীয় এমপি মো. আমির হোসেন ভূঁইয়া।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply