মুরাদনগরে ২ শিশুকে খুনের কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে ঘাতক ইয়াছমিন

মুরাদনগর(কুমিল্লা)প্রতিনিধি :–
কুমিল্লার মুরাদনগরে  চাঞ্চল্যকর ২ শিশু খুনের ঘটনার সতত্য পুলিশের কাছে স্বীকারের পর খুনের কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবান বন্দি দিয়েছে ঘাতক খুনি ইয়াছমিন।
মঙ্গলবার বিকেলে জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট বেগম রাজিয়া সুলতানার আদালতে হাজির হয়ে সেচ্ছায় সে এ জবানবন্দি প্রদান করেন। এ দিকে দুই শিশুর পরিবারে চলছে শোকের মাতম। মঙ্গলবার এলাকার হাজার হাজার উৎসুক জনতা এসে ওই শিশুদের মা বাবাকে শান্তনা দিতে ভীড় জমায়।এ সময় এলাকার লোকজনের মাঝে কান্নার রোল পড়ে যায়। জানা যায়, সোমবার দুপুরে মুরাদনগর উপজেলার বাবুটিপাড়া ইউনিয়নের লাজৈর গ্রামে গাছের আম চুরি করার অপরাধে দুই শিশুকে নির্মমভাবে খুন করে একই বাড়ীর এক পাষন্ড ইয়াছমিন। নিহত দুই শিশুর নাম আরাফাত (৭) এবং  জসিম (৮)। নিহত আরাফাতের বাবা বিল্লাল হোসেন বাদী হয়ে ২ জন এজহার নামীয় ও অজ্ঞাতনামা ৪ জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেছে। । এদিকে স্থানীয়রা ওই পাষন্ড মহিলা সহ এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের বিচার দাবী করেছেন।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, মুরাদনগর উপজেলার লাজৈর গ্রামের বাবুল মিয়ার স্ত্রী ইয়াছমিনের (২০) সাথে আমপাড়া নিয়ে ওই দুই শিশুর পরিবারের ঝগড়া হয়। এর জের ধরে ইয়াছমিন তার ভাসুর বিল্লাল হোসেনের ছেলে আরাফাত হোসেন এবং চাচা শ্বশুর শাহআলমের ছেলে জসিম উদ্দিন কে হত্যা করে।  সোমবার দুপুরে ইয়াছমিন বাড়ির পাশের ভুট্টা ক্ষেতে ডেকে নিয়ে আরাফাতকে ধান কাটার কাঁচি দিয়ে জবাই করে এবং জসিমকে একটি খালের পানিতে ডুবিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply