কুমিল্লায় এক রাতে ৩ পরিবারে ডাকাতি-লুট, গুলিবিদ্ধসহ আহত ৫, আটক ১

মোঃ আলাউদ্দিন, নাঙ্গলকোট :–
কুমিল্লায় প্রবাসীর বাড়ির ৩ পরিবারে দুর্ধর্ষ ডাকাতি ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এসময় ডাকাতদের এলোপাতারি গুলি ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে নারী-পুরুষসহ কমপক্ষে ৫ জন আহত হয়েছে। জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলার আদ্রা গ্রামে সোমবার গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে পার্শ্ববর্তী গ্রামের মমিনুল হক নামের একজনকে আটক করে।
জানা যায়, সোমবার গভীর রাতে ১০/১২ জনের একটি সংঘবদ্ধ সশস্ত্র ডাকাত দল আদ্রা গ্রামের কুয়েত ফেরত জহিরের বাড়িতে দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে। ডাকাতরা অস্ত্রের মুখে ঘরের লোকজনকে জিম্মি করে নগদ ৫০ হাজার টাকা ও প্রবাসী জহিরের মায়ের গলা ও কান থেকে দেড় ভরি ওজনের স্বর্ণালংকার লুটে নেয়। এসময় বাঁধা দিলে ডাকাতরা জহিরের পিতা আবদুল মতিন (৬৫) ও মাতা জহুরা বেগমকে (৫৫) কুপিয়ে আহত করে। ডাকাত দল জহিরের চাচা পার্শ্ববর্তী আবুল বশরের ঘরে ঢুকে নগদ ১ লাখ টাকা, দেড় ভরি ওজনের সোনার চেইনসহ স্বর্ণালংকার লুটে নেয় এবং গৃহকর্তা আবুল বশরকে (৬০) কুপিয়ে এবং ছেলে লিটনকে (২০) গুলি করে আহত করে। এছাড়া ডাকাত দল জহিরের অপর প্রবাসী ভাই এয়াকুব আলীর ঘরে প্রবেশ করে তার স্ত্রী কাউসারা বেগমকে (২৬) ছুরিকাঘাত করে ১ ভরি ওজনের গলার চেইন ও কানের দুল এবং নগদ ১৯ হাজার ৫শ’ টাকা লুটে নিয়ে পালিয়ে যায়।
ঘটনাস্থল থেকে ফিরে নাঙ্গলকোট থানার ওসি মো. নজরুল ইসলাম পিপিএম জানান, পার্শ্ববর্তী ভোলাইন গ্রামের আবদুর রাজ্জাকের পুত্র মমিনুল হক কুয়েতে চুরির দায়ে ধরা পড়ে ৩ বছর জেল খাটে। ওইসময় প্রবাসী জহির থেকে কোন সহযোগিতা না পেয়ে মমিন তার উপর ক্ষিপ্ত হয় এবং দেশে ফিরে এসে সোমবার রাতে পূর্বশত্রুতার জের ধরে জহিরের বাড়িতে ঢুকে তাকে না পেয়ে এ ঘটনা ঘটায় বলে ধারণা করা হচ্ছে। বেলা ১১টার দিকে উপজেলার ভোলাইন গ্রামের বাড়ি থেকে মমিনুল হককে (২৬) আটক করা হয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply