কুবিতে বহিস্কৃত ছাত্র কর্তৃক ছাত্রীর শ্লীলতাহানী

নিজস্ব প্রতিনিধি:–
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের পরীক্ষার হলে প্রবেশ করে এক ছাত্রীকে শ্লীলতাহানী ঘটায় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবন বহিস্কার হওয়া একই বিভাগের ছাত্র নুরুল আমীন সবুজ। ঘটনার পর পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। ২০১১ সালের ডিসেম্বরে ঐ ছাত্রীকে শ্লীলতাহানীর অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবন বহিস্কার হয় নুরুল আমীন সবুজ।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, শনিবার বাংলা বিভাগের ৪থ বর্ষ প্রথম সেমিস্টারের চুড়ান্ত পরীক্ষা শুরুর বিশ মিনিট পূর্বে পরীক্ষার হলে প্রবেশ করে সবুজ। সে পরীক্ষার হলে কিছু সময় অপেক্ষা করে। কিছুক্ষন পর ওই ছাত্রী এলে তাকে জড়িয়ে ধরে শ্লীলতাহানী করে। এ ঘটনায় সবুজ ওই ছাত্রীর মুখমন্ডলের বিভিন্ন স্থান জখম হয় এবং প্রচুর রক্তপাত হয়। এ সময় অন্যরা কিছু বুঝে ওঠার আগেই সবুজ পরীক্ষার হল ত্যাগ করে। আহত ছাত্রীকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয় । এ ঘটনায় লাভলী নির্যাতিত ছাত্রীর পরিবার কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানায় ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে সবুজের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে। পুলিশ প্রক্টরিয়াল বডির সহায়তায় সবুজকে খুঁজতে ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলে তল্লাশী চালায়। তবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও পুলিশ আসার পূর্বেই সে ক্যাম্পাস ছেড়ে পালিয়ে যায়।
উল্লেখ্য, সবুজ বার বার ওই ছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে প্রত্যাখ্যত হয়ে ২০১১ সালে বিভাগের ২য় সেমিস্টার পরীক্ষা চলাকালে সবুজ লাভলীর শ্লীলতাহানীর চেষ্টা চালায় এবং ছুরিকাঘাত করে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তদন্তের পর তাকে আজীবনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিস্কার করে। এ বহিস্কারাদেশের উপড় সবুজ হাইকোর্টে রিট করে। হাইকোর্টে রিট চলমান অবস্থায় সবুজ শনিবার ক্যাম্পাসে এই ঘটনা ঘটায়।
এ বিষয়ে প্রক্টর মোঃ আইনুল হক বলেন, ‘প্রশাসন এ বিষয়ে কঠোর ব্যবস্থা নিবে। তাকে পুলিশে ধরিয়ে দিতে আমরা চেষ্টা করছি।’

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply