চৌদ্দগ্রামে পচাঁ ডিম আর নোংরা পরিবেশে তৈরি হচ্ছে কেক : ভ্রাম্যমান আদালতে বার বার অর্থদন্ড দিয়েও বন্ধ হয়নি অপকর্ম

চৌদ্দগ্রাম(কুমিল্লা) প্রতিনিধি:–
কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলা সদরে রহমানিয়া বেকারীতে প্রকাশ্য দিবালোকে পচাঁ ডিম আর নোংরা পরিবেশে তৈরি করা হচ্ছে কেকসহ বিভিন্ন বেকারী সামগ্রী। চৌদ্দগ্রাম থানা প্রাঙ্গন থেকে মাত্র দেড়-দুইশ গজ দুরে নজমিয়া সিনিয়র মাদ্রাসা রোডে অবস্থিত এ বেকারীতে প্রতিদিন হাজার হাজার পচাঁ ডিম দিয়ে কেক তৈরি করা হলেও যেন দেখার কেউ নেই।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, মাদ্রাসা রোডের ওই বেকারীতে নোংরা পরিবেশে শরিফ নামের এক শ্রমিক গ্লাবস ছাড়াই খালি হাতে পচাঁ ডিম ভেংগে বালতি ভর্তি করছে। পাশেই রবিন নামের আরেক শ্রমিক গ্যাসের চুলা থেকে কেক বের করে আনছে। আবার আশাদুল সেই পচাঁ ডিম গুলো ময়দার সাথে মিমিয়ে নিচ্ছে। প্রথমে কিছু বুঝতে না পারলেও সাংবাদিক পরিচয় পাওয়ার পর তারা পালানোর চেষ্টা করে। পরে অনেক অনুনয়-বিনয় করে তাদের কোন ক্ষতি হবে না আশ্বাস দেয়ার পর তারা কথা বলে। ওই বেকারীতে ১৫ জন শ্রমিক কাজ করে। প্রতিদিন ২-৩ হাজার ডিম লাগে বলে তারা জানায়। এছাড়া আর কিছু বলতে রাজী হয়নি তারা। পরে পাশের আরেক জনের সাথে নাম প্রকাশ না করার শর্তে কথা বললে তিনি জানান, উপজেলার ছুপুয়া এলাকায় অবস্থিত সিপি বাংলাদেশ নামের মুরগীর বাচ্চা ফুটানোর হ্যাচারী থেকে বাদ পড়া (বাচ্চা না ফুটানো) তথা পচাঁ ডিম গুলো অল্প দামে ক্রয় করে নিয়ে আসে। প্রত্যেকটি ডিম মাত্র দেড়-২টাকায় ক্রয় করা যায় বলে তিনি জানান। এছাড়া পচাঁ ডিমের কেক দেখতে সুন্দর দেখায় বলে ক্রেতারাও সহজে আকৃষ্ট হয়ে যায়।
ইতিপূর্বে উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্টেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত বেশ কয়েক বার অভিযান চালিয়ে বেকারী মালিক আবদুর রহমানের অর্থদন্ডের জরিমানা করলেও তার স্বভাবের কোন পরিবর্তন হয়নি। মানুষরে জন্য ক্ষতিকর এ খাবার তৈরি থেকে বিরত থাকবে বার বার অঙ্গীকার করলেও চোর না শোনে ধর্মের দোহাই।
চৌদ্দগ্রাম হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ ডা: ফারুক আহমেদ বলেন, পচাঁ ডিমের তৈরি খাদ্যদ্রব্য খাওয়ার পর ব্যকটেরিয়া সৃষ্টি হয়ে ডায়রিয়া, আমাশয়সহ পেটের পিড়া জনিত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হতে পারে। এসব খাদ্য নিয়মিত খাওয়ার কারণে স্বাস্থ্যহানী বা দীর্ঘমেয়াদী রোগে অক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
এ বিষয়ে উপজেলা সেনেটারী ইন্সপেক্টর হাবিবুর রহমানের মোবাইল (০১৭২৬-২৩৩৬৩৪) নাম্বারে বার বার যোগাযোগ করেও সংযোগ না পাওয়ার কারণে তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
জনস্বাস্থ্যের জন্য চরম হুমকী থাকায় অবিলম্বে এ বেকারী বন্ধ করে দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি জোর দাবী জানিয়েছেন এলাকার সচেতন মহল।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply