লাকসামে ডেমু ট্রেন দূর্ঘটনা ও স্কুল ছাত্র তুহিন নিহতের ঘটনায় গঠিত বিভাগীয় তদন্ত কমিটি তিনদিন পরও আসেনি

লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি :–
কুমিল্লার লাকসামে ডেমু ট্রেনের সঙ্গে বালূ ভর্তি ট্রাক্টরের সংঘর্ষে এবং একই ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে স্কুল ছাত্রের মৃত্যুর ঘটনায় পূর্বাঞ্চল রেলওয়ের বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তাকে (ডিটিও)  প্রধান করে চার সদস্য বিশিষ্ট একটি বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করা হলেও সোমবার পর্যন্ত ওই তদন্ত দল লাকসামে আসেনি।
দূর্ঘটনা সম্পর্কে লাকসাম রেলওয়ে জংশনের ষ্টেশন মাষ্টার মোঃ দিদার হোসেন বলেন, নিয়ম অনুযায়ী চলন্ত ট্রেনের দরজা বন্ধ রাখার কথা। কিন্তু দরজা গুলো খোলা ছিল, এছাড়া দূর্ঘটনা কবলিত ডেমু ট্রেনটি যেহেতু দৌলতগঞ্জ ষ্টেশনের কাছাকাছি ছিল সেহেতু এটির গতি অনুসারে ১০ ফুটের মধ্যে ইমারজেন্সী ব্রেক করে ট্রেনটি থামানো যেত। তাহলে একটি দরজার ক্ষতি হলেও অন্য দরজাগুলো রক্ষা পেত।
তিনি আরো বলেন ডেমু ট্রেনের দুইদিকে ইঞ্জিন রয়েছে। দূর্ঘটনার প্রায় দেড় ঘন্টা পর ট্রেনটি পুনরায় লাকসাম জংশন ফিরে যাওয়ার সময় সামনের ইঞ্জিন ব্যবহার করলে হয়তো ওই স্কুলছাত্রটি দূর্ঘটনা থেকে বেঁচে যেত। এ ক্ষেত্রে চালকের অদূর্শীতাই পরিলক্ষিত হয়েছে। তবে সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে বিষয়টি বেরিয়ে আসবে। এ ব্যাপারে দূর্ঘটনা কবলিত ট্রেনের চালক মো. আবুল হোসেনের সঙ্গে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বিরক্তির শোরে এখন কথা বলা যাবে না, বলে সংযোগটি বিছিন্ন করে দেন।
লাকসাম রেলওয়ে থানা ভারপ্রাপ্ত কমর্কতা (ওসি) মোঃ আহসান হাবিব জানান, দূর্ঘটনার বিষয়ে ওই ট্রেনের পরিচালক (গার্ড) মো. আবুল হোসেন এবং স্কুলছাত্র নিহতের ঘটনায় লাকসাম রেলওয়ে জংশনে কর্মরত রেল পথ বিভাগের কর্মচারী মো. আবু তাহের থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেছেন। তিনি আরও জানান, প্রাথমিক তদন্তে বালু ভর্তি ট্রাক্টরটি দৌলতগঞ্জ বাজারের রেলগেইট এলাকার আলমদিনা সুইটমিটের মালিক আক্তারুজ্জমানের (জমা) বলে জানা গেছে। গত রোববার রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলিয় বিভাগীয় যান্ত্রিক কর্মকর্তা (ডিএমই) এবিএম কারুজ্জামান দূর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ডেমু ট্রেনটি পরিদর্শনে লাকসাম জংশন আসেন। তিনি জানান, যাত্রীসেবা নিশ্চিতের লক্ষ্যে ক্ষতিগ্রস্ত ট্রেনটি দ্রুত মেরামতসহ ওই লাইনে পুনরায় চলাচলের জন্য সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা ক্রমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। উল্লেখ্য গত শনিবার সকালে লাকসাম দৌলতগঞ্জ ষ্টেশনের কাছে নোয়াখালীগামী ডেমু ট্রেনের সঙ্গে বালু ভর্তি একটি ট্রাক্টরের সংঘর্ষে ট্রেনের ৪টি দরজা ভেঙ্গে ব্যাপক ক্ষতি হয়। এছাড়া দূর্ঘটনা কবলিত ট্রেনটি লাকসাম জংশন ফেরত যাওয়ার সময় ওই ট্রেনের নীচে কাটা পড়ে লাকসাম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র তানিমুল আহমেদ তুহিন নিহত হয়।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply