কুমিল্লায় বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস পালিত : জেলা স্বাস্থ্য সেবা পুরস্কার ঘোষণা

স্টাফ রিপোর্টার :–
সোমবার (৭ই এপ্রিল) কুমিল্লায় যথাযোগ্য মর্যাদায় ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস’ পালিত হয়। সকালে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে বিশাল বর্ণাঢ্য র‌্যালীর উদ্বোধন করেন কুমিল্লার সিভিল সার্জন ডা. মোঃ মুজিবুর রহমান। এই সময়ে জেলা বিএমএ’র সভাপতি ডা. গোলাম মহিউদ্দিন দীপু, সাধারণ সম্পাদক ও ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ আজিজুর রহমান সিদ্দিকী, জেলা স্বাচিপের সাধারণ সম্পাদক ডা. আব্দুল বাকী আনিছ সহ অন্যান্য কর্মকর্তাগণ এবং এনজিও নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বিশাল এই বর্ণাঢ্য এই র‌্যালীটিতে প্রায় অর্ধসহস্র মানুষ ব্যানার, ফেস্টুন ও মাথার ক্যাপ সহ নানা আয়োজনে অংশগ্রহণ করে- যা ছিল এই যাবত কালের ইতিহাসে কুমিল্লা জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের স্মরণকালের সর্ববৃহৎ বর্ণাঢ্য র‌্যালী। র‌্যালীটি শহরের বড় বড় সড়ক প্রদক্ষিণ করে কুমিল্লা টাউন হলে গিয়ে শেষ হয়।
সকাল ৯.০০ টায় ঐতিহাসিক কুমিল্লা টাউন হলে কুমিল্লা জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসে’র আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ‘মশা-মাছি দূরে রাখি: রোগ বালাই মুক্ত থাকি’ শীর্ষক প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে এই আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন কুমিল্লার সিভিল সার্জন ডা. মোঃ মুজিবুর রহমান। প্রধান অতিথি ছিলেন কুমিল্লার জেলা প্রশাসক মোঃ তোফাজ্জল হোসেন মিয়া। বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএমএ’র সহ-সভাপতি অধ্যাপক  ডা. মহসিনুজ্জামান চৌধুরী, জেলা বিএমএ’র সভাপতি ডা. গোলাম মহিউদ্দিন দীপু, জেলা স্বাচিপের সভাপতি ও জেলা বিএমএ’র সাবেক সভাপতি ডা. মোঃ শহীদুল্লাহ, জেলা বিএমএ’র সাধারণ সম্পাদক ও ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ আজিজুর রহমান সিদ্দিকী, জেলা স্বাচিপের সাধারণ সম্পাদক ডা. আব্দুল বাকী আনিছ, পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক ডা. এবিএম সামছুদ্দিন আহমেদ, জেলা বিপিএমপিএ’র সভাপতি ডা. একেএম আবদুস সেলিম, সনাক কুমিল্লার সভাপতি আলহাজ্ব শাহ মোঃ আলমগীর খাঁন, হার্ট কেয়ার ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা মহাসচিব অধ্যাপক ডা. তৃপ্তীশ চন্দ্র ঘোষ, এফডব্লিউভিটিআই’র অধ্যক্ষ গিয়াস উদ্দিন আহমেদ। অনুষ্ঠানে পবিত্র কোরআন তেলওয়াত করেন মোঃ শাহ পরাণ। অনুষ্ঠানে প্রাঞ্জল উপস্থাপনা করেন ডা. সুস্মিতা সেন গুপ্ত। সকল এনজিও’র পক্ষে বক্তব্য রাখেন এফপিএবি’র জেলা কর্মকর্তা মোঃ শাহজাহান।
এবার কুমিল্লা জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসে’ নতুন একটি অধ্যায় সুচনা করে তা হচ্ছে ‘জেলা স্বাস্থ্য সেবা পুরস্কার’ প্রবর্তন। এই বৎসর ৫টি বিভাগের শ্রেষ্ঠ কর্মীকে পুরস্কার প্রদান করা হয়, আগামী বছর থেকে আরো ব্যাপকভাবে প্রদানের সিদ্ধান্ত হয়। এবার যারা ‘জেলা স্বাস্থ্য সেবা পুরস্কার-২০১৪’  অর্জন করেছেন তাদের সবাইকে অভিনন্দন পত্র ও স্মারক ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। তারা হচ্ছেন- জেলা শ্রেষ্ঠ সেবিকা চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সেবিকা সামছুন্নাহার, জেলার শ্রেষ্ঠ স্বাস্থ্য সহকারী আদর্শ সদর এর উত্তর দূর্গাপুরের ২নং ওয়ার্ডের স্বাস্থ্য সহকারী আবুল হোসেন সরকার, জেলার শ্রেষ্ঠ সিএইচসিপি হোমনার ভাষানিয়া কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপি নুরু নাহার বেগম, জেলার শ্রেষ্ঠ পরিচ্ছন্নতা কর্মী দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের শেফালী বালা দাস, জেলার শ্রেষ্ঠ যক্ষ্মা কার্যক্রমে এনজিও (ব্র্যাক) স্বাস্থ্য সেবিকা মুরাদনগর উপজেলার সুরজাহান বেগম। পুরস্কার প্রদান শেষে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের আয়োজনে ও ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ আজিজুর রহমান সিদ্দিকী’র সম্পাদনায় প্রকাশিত সুন্দর ১টি সুভ্যেনীর এর মোড়ক উন্মোচন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি মোঃ তোফাজ্জল হোসেন মিয়া।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জন্ম দিনে ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস’ পালনের রীতি শুরু হয়েছে ১৯৫০ সাল থেকে। এই সংস্থার এবারের ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসে’র প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল ‘মশা-মাছি দূরে রাখি: রোগ বালাই মুক্ত থাকি’। এই বিষয়ে বিশেষজ্ঞগণ ও অনুষ্ঠানের অতিথিবৃন্দ বিশদ আলোচনা করেন এবং কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনকে মশা-মাছি মুক্ত করতে আরো পদক্ষেপ গ্রহণের আহবান জানান। কুমিল্লা টাউন হলের নীচতলা ও দোতলায় ব্যাপক জন সমাবেশের ফলে তিল ধারণের ঠাই ছিল না। এনজিও প্রতিষ্ঠানগুলো সহ সংশ্লিষ্ট সকল বিভাগের সমন্বিত আয়োজনে কুমিল্লায় এই দিবসের কর্মসূচীগুলো ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে গণ্যমান মহোদয়ের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন- জেলা স্বাচিপ নেতা ডা. মোঃ আতোয়ার রহমান, জেলা বিএমএ’র সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. মোঃ রুহুল আমিন ভূইয়া রিপন, আদর্শ সদর উপজেলার স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডা. গোলাম শাহ জাহান, গাইনী বিশেষজ্ঞ ডা. রায়হানা সুলতানা বেগম, অর্থোপেডিক সার্জন ডা. লিটন কুমার রায়, এমওসিএস ডা. সাধন চক্রবর্তী, এমওডিআরএস ডা. রাজন কুমার দাস, সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ মোসলেহ্ উদ্দিন, জুনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষ কর্মকর্তা মোঃ আলাউদ্দিন, জেলা পরিসংখ্যানবিদ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, ডিএসআই মোঃ আবদুল খালেক, জেলা ব্র্যাক’র সিনিয়র ব্যবস্থাপক মোঃ রফিকুল আলম, পিও মোঃ সামছুল হক প্রমুখ। যে সকল উন্নয়ন সহযোগী সংগঠন সমূহ এতে অংশগ্রহণ করেন, সেগুলো হচ্ছে- বাংলাদেশ জাতীয় অন্ধ কল্যাণ সমিতি, পেইজ, ব্র্যাক, স্বনির্ভর বাংলাদেশ- সূর্য্যরে হাসি ক্লিনিক, সুপ্র-দর্পণ, অক্সফাম, এফপিএবি, নাটাব, ঢাকা আহসানিয়া মিশন, সনাক কুমিল্লা, মেরিস্টোপস ক্লিনিক, আরএইচস্টেপ, এইড কুমিল্লা, ওয়াইডব্লিউসিএ, সৃষ্টি, দুর্জয় নারী কল্যাণ সংস্থা, ইপসা, গোমতী নারী কল্যাণ সংস্থা, প্রতিজ্ঞা পরিষদ, দুস্থ মা ও শিশু, এনজিও ফোরাম।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply