নাঙ্গলকোটে হাট-বাজার গুলোর বেহাল দশা

মোঃ আলাউদ্দিন, নাঙ্গলকোট (কুমিল্লা):–
কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার হাট-বাজার গুলো থেকে সরকার প্রতি বছর লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করলেও বাজার গুলোর কোন উন্নয়ন হচ্ছেনা। ইতিমধ্যে ৩৯টি বাজারের মধ্যে শাকতলী আলীগঞ্জ বাজার, বাহুড়া বাজারসহ ১০/১২টি বাজার বন্ধ হয়ে গেছে। এছাড়া উপজেলার নাঙ্গলকোট পৌর সদর, ভোলাইন, বাঙ্গড্ডা, ওমরগঞ্জ, জোড্ডা, বাইয়ারা, মান্দ্রা ও চডিয়া বাজার সহÑবিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বাজার গুলোরও দীর্ঘদিন থেকেই বেহাল দশা। একটু বৃষ্টি হলেই বাজার গুলোতে দেখা দেয় জলাবদ্ধতা। পানি নিষ্কাশনের জন্য পরিমান মত ড্রেনিং ব্যবস্থা না থাকায় ব্যবসায়ী, ক্রেতা, স্কুল-কলেজের ছাত্র/ছাত্রী ও সাধারণ জনগনকে দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। প্রতিদিন বাজার গুলোতে শত শত মানুষ কেনাকাটা করতে আসে। কিন্তু সরকারী উদ্যোগে হাটÑবাজার গুলোতে কোন উন্নয়ন না হওয়ায় ব্যবসায়ীরা তাদের প্রতিষ্ঠানে বিনিয়গে অনীহা প্রকাশ করছে। আর নিকটস্থ বাজারগুলোতে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র না পাওয়ায় সাধারন জনগন তাদের চাহিদা মেটাতে শহরমুখী হচ্ছে। এর ফলে ব্যবসায়ীদের লক্ষ লক্ষ টাকা লোকসান গুনতে হচ্ছে। তাই স্থানীয় জনগণ, ছাত্র/ছাত্রী ও ব্যবসায়ীদের মনে প্রশাসনের প্রতি ক্ষোভের সৃষ্টি হচ্ছে। বেগম জামিলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের কয়েকজন ছাত্রী জানায়, দীর্ঘ দিন যাবত বাজার গুলোতে কোন উন্নয়ন হচ্ছে না। তাই আমরা বাজারের উপর দিয়ে চলাফেরা করতে বিভিন্ন ধরণের সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছি। সোনালী প্রিন্টার্সের স্বত্তাধিকারী খন্দকার মোঃ সহিদ সহ নাঙ্গলকোট বাজারের একাধিক ব্যবসায়ীরা জানান, বাজারে বিভিন্ন সমস্যার কারণে তাদের প্রতিনিয়ত লোকসান গুনতে হচ্ছে। তাই তারা প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করছি। অন্যান্য বাজার গুলোর ব্যবসায়ীরা ঠিক একই কথা জানান। জরুরি কাজে বাইরে থাকায় এ ব্যাপারে নাঙ্গলকোট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ সাইদুল আরীফের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

Check Also

করোনাযুদ্ধে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিমকে বুড়িচংয়ে সমাহিত

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ করোনাযুদ্ধে পুলিশে প্রথম জীবন উৎসর্গকারী কনস্টেবল জসিম উদ্দিনকে (৩৯) কুমিল্লায় সমাহিত করা হয়েছে। ...

Leave a Reply